মাওয়া পুলিশ ফাঁড়ির ‘চাঁদাবাজ’ কনস্টেবল প্রত্যাহার

‘মাওয়ায় প্রকাশ্যে পুলিশের চাদাঁবাজি’ শিরোনামে বুধবার বাংলানিউজে সংবাদ প্রকাশের পর মাওয়া নৌ পুলিশ ফাঁড়িতে কর্মরত কনস্টেবল মজিবর রহমানকে প্রত্যাহার করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার সকালে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে তাকে প্রত্যাহার করে মুন্সীগঞ্জ পুলিশ লাইনে সংযুক্ত করা হয়েছে।

মাওয়া নৌ ফাঁড়ির উপ পরিদর্শক (এসআই) হাফিজুর রহমান বাংলানিউজকে জানান, প্রত্যাহারের খবর পাওয়ার পর বৃহস্পতিবার সকালেই পুলিশ কনস্টেবল মজিবর রহমান মুন্সীগঞ্জ পুলিশ লাইনে চলে গেছেন।


অন্যদিকে পুলিশের একাধিক সদস্য নাম প্রকাশ না করার শর্তে বাংলানিউজকে জানান, কতিপয় পুলিশ সদস্যদের জন্য পুলিশ বিভাগের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন হচ্ছে। কর্মকর্তাদের অগোচরে কতিপয় পুলিশ সদস্য অনৈতিক কাজে লিপ্ত হওয়ায় প্রখর রৌদ্রের তাপে মাওয়া ঘাট এলাকায় যেসব পুলিশ সদস্যরা আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ কার্যক্রমে পরিশ্রম করছেন তা বিফলে যাচ্ছে।

এদিকে প্রকাশ্য চাদঁবাজির অভিযোগে পুলিশ কনস্টেবল মজিবর রহমানকে পুলিশ লাইনে প্রত্যাহার করায় মাওয়া নৌ পুলিশ ফাঁড়ি ও ট্রাফিক পুলিশ সদস্যদের মধ্যে বদলি আতঙ্ক দেখা দিয়েছে।

উল্লেখ্য, মাওয়া ঘাটে প্রতিদিনই শত শত মালবাহী ট্রাক থেকে ২০০ থেকে ২৫০ টাকা আদায় করছে মাওয়া ফাঁড়ির পুলিশ ও ট্রাফিক পুলিশ সদস্যরা। যেসব ট্রাক ও যানবাহনের চালক ও হেলপাররা পুলিশের চাহিদা মতো চাঁদা দিলে গাড়ি পেছনে থাকলেও ফেরিতে ওঠার জন্য তাদের লাইনে থাকতে হয়না। এছাড়া বাস, প্রাইভেটকারসহ অন্যান্য যানবাহনকেও চাঁদা দিতে হয়।

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর
================

মাওয়ায় চাঁদাবাজির অভিযোগে পুলিশ ক্লোজড

ঢাকা-মাওয়া মহাসড়কের মাওয়া সড়কে চাঁদাবাজির অভিযোগে পুলিশ ফাঁড়ির কনস্টেবল মজিবর রহমানকে প্রত্যাহার করা হয়েছে। মাওয়া নৌ-পুলিশ ফাঁড়ি থেকে বৃহস্পতিবার তাকে মুন্সীগঞ্জ পুলিশ লাইনে ক্লোজ করা হয়েছে। কনস্টেবল মজিবুর মাওয়া-খুলনা মহাসড়কের মাওয়ায় পণ্যবাহী ট্রাকসহ বিভিন্ন যানবাহন থেকে নিয়মিত চাঁদা আদায় করছিল।

সূত্র মতে, মাওয়া প্রান্তে ট্রাক প্রতি ২০০ থেকে ২৫০ টাকা করে আদায় করছে মাওয়া ফাঁড়ি ও ট্রাফিক পুলিশের সদস্যরা। ট্রাক ও যানবাহনের চালক ও হেলপাররা তাদের এ চাঁদাবাজিতে অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে। পুলিশের চাহিদা মতো চাঁদা দেওয়া হলে গাড়ি পেছনে থাকলেও ফেরিতে ওঠার জন্য তাদের সিরিয়াল আগে দেওয়া হয়। এছাড়া বাস, প্রাইভেটকারসহ অন্যান্য যানবাহনকেও সিরিয়াল আগে পেতে চাঁদা দিতে হচ্ছে।
মাওয়া নৌ ফাঁড়ির এসআই হাফিজুর রহমান জানান, চাঁদাবাজির অভিযোগ উঠায় কনস্টেবল মজিবর রহমানকে প্রত্যাহার করা হয়।

ঢাকা নিউজ এজেন্সি