আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে ভোট দিতে পারেননি সানজিদা খানম

sajidakhanamভোট দিতে পারলেন না ঢাকা-৪ আসনের আওয়ামী লীগ দলীয় সংসদ সদস্য ও সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী সানজিদা খানম। তিনি রোববার বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে অনুষ্ঠিত মুন্সীগঞ্জ আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে আসেন। কিন্ত নির্বাচনের ভোট গ্রহণ শেষ হওয়ার আধঘন্টা পর আসায় তিনি তার ভোটটি দিতে পারেনি। তবে, চেষ্ঠা করেছেন ভোট দিতে। কিন্ত ভোগ গ্রহণের নির্ধারিত সময় পেরিয়ে যাওয়ায় নির্বাচন সংশ্লিষ্ঠ কর্মকর্তারা তাকে ফিরিয়ে দেন। পরে তিনি জেলা আইনজীবী সমিতির তৃতীয় তলায় আওয়ামী লীগ ঘরানার আইনজীবী অজয় চক্রবর্তীর কক্ষে কিছু সময় কাটিয়ে ঢাকায় চলে যান। তিনি এবারই প্রথম মুন্সীগঞ্জ আইনজীবী সমিতিতে ভোটার হয়েছেন। জেলা আইনজীবী সমিতিতে ২৬৬ জন ভোটারের মধ্যে তার ভোটার নম্বর ২৪০। তিনি মুন্সীগঞ্জ জেলার শ্রীনগর উপজেলার কবুতর খোলা গ্রামের মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক সিরাজ মেম্বারের মেয়ে। এক বছরের জন্য রোববার সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত আইনজীবী সমিতির ভবনে চলে আইনজীবীদের ভোটাভুটি। জেলা আইনজীবী সমিতির নতুন কমিটি গঠনের লক্ষ্যে নির্বাচনে ১৫টি পদের বিপরীতে আওয়ামী লীগ ও বিএনপি ঘরানার ২টি পূর্ণ প্যানেলে ৩০ জন প্রার্থী ও স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে সভাপতি পদে লড়েন আরো ১ জন।


সবমিলিয়ে সভাপতি পদে ৩ জন, সাধারণ সম্পাদক পদে ২জনসহ ৩১ জন প্রার্থী ভোট প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের ব্যানারে এবারই প্রথম সভাপতি পদে ফোরামের সভাপতি ও শহর বিএনপির সাবেক সভাপতি আব্দুল মান্নান ও সাধারণ সম্পাদক পদে আইনজীবী সমিতির সাবেক সহ-সাধারণ সম্পাদক, মুন্সীগঞ্জ পৌরসভার নয় নম্বর ওয়ার্ড বিএনপির সহ-সভাপতি মো. মাসুদ আলম প্রার্থী হন। আওয়ামী লীগ সমর্থিত সম্মিলিত আইনজীবী সমন্বয় পরিষদের ব্যানারে জেলা জাসদের (ইনু) সভাপতি নাসিরুজ্জামান সভাপতি পদে এবং জেলা জাসদের কার্যকরী কমিটির সদস্য কাজী নজরুল ইসলাম অসীমকে সাধারণ সম্পাদক পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। এছাড়া স্বতন্ত্র হিসেবে সভাপতি পদে সমিতির সাবেক সভাপতি ও জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির ভাইস-চেয়ারম্যান মুজিবুর রহমান ভোট যুদ্ধে নামেন। এ রিপোর্ট লেখার সময় রাত ৮টায় ভোট গগনা চলছে। পূর্ণাঙ্গ ফলাফল ঘোষণা হতে পারে মধ্যরাত ১২টা থেকে রাত ১টায়।


উল্লেখ্য, সকালে ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির উপ-দপ্তর সম্পাদক এডভোকেট মৃণাল কান্তি দাস। নির্বাচনে ২৬৬ টি ভোটের মধ্যে ২৬৩টি ভোট কাস্ট হয়েছে।

ঢাকা নিউজ এজেন্সি