গ্রেপ্তারের পর যুক্তরাষ্ট্র থেকে এক বাংলাদেশিকে বহিষ্কার

প্রতারণার অভিযোগে গ্রেপ্তারের ২৪ ঘণ্টার মধ্যে যুক্তরাষ্ট্র থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে এক বাংলাদেশিকে। বিপ্লব আহমেদ (৪৩) নামে ওই ব্যক্তি একাধিক নাম ব্যবহার করে ইমিগ্রেশন কর্তৃপক্ষকে বিভ্রান্ত করছিলেন। তাকে ১৪ জুন ফেরত পাঠানো হয়েছে বলে কর্মকর্তারা জানিয়েছেন।

ইমিগ্রেশনের আইন লঙ্ঘনকারীদের ক্ষমা করে যুক্তরাষ্ট্রে স্থায়ীভাবে বসবাসের সুযোগ সৃষ্টির জন্যে সিনেটে একটি বিল নিয়ে বিতর্কের মধ্যে এই বাংলাদেশিকে বহিষ্কার করা হলো।

ইমিগ্রেশন অ্যাটর্নি মঈন চৌধুরী এই প্রসঙ্গে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “এক ব্যক্তি একাধিক নাম ব্যবহার করলে সেটি ফেডারেল ক্রাইমে পরিণত হয়। এ ধরনের ক্রাইমে লিপ্তদের কঠোর হস্তে দমন করা হয়।”

মঈন চৌধুরীর পরামর্শ, সিটিজেন স্ত্রী অথবা জন্মগতভাবে আমেরিকান সন্তান রয়েছে এমন ব্যক্তিরা যেন নাম পাল্টে বৈধ হওয়ার পথে পা না বাড়ান।

মুন্সীগঞ্জের সন্তান বিপ্লব আহমেদের স্ত্রী এবং দুই সন্তান রয়েছে। তারা সবাই যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিকত্ব নিয়েছেন। বিপ্লবকে এখন কমপক্ষে ১০ বছর বাংলাদেশে কাটাতে হবে স্ত্রী-সন্তানকে যুক্তরাষ্ট্রে রেখে।

বিপ্লব নানা কারণে স্থায়ীভাবে বসবাসের অনুমতি পাননি। ১০ বছর আগে রাজনৈতিক আশ্রয় প্রার্থনা করলেও তা নাকচ হয়। এরপরও তিনি অবৈধভাবে বাস করছিলেন।

২০০৯ সালে বিপ্লবকে নিউ জার্সিতে গ্রেপ্তার করা হয়।

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর