তত্ত্বাবধায়ক সরকার নিয়ে আলোচনার সুযোগ নেই

drhasanনির্দলীয় তত্ত্বাবধায়ক সরকার নিয়ে আলাপ আলোচনা করার কোনো সুযোগ নেই বলে জানিয়েছেন বর্তমান সরকারের বন ও পরিবেশ মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।

তিনি বলেন, “দেশের সংবিধান ও সংসদের রীতি অনুয়ায়ী অর্ন্তবর্তীকালীন সরকারের প্রধান হবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। নিয়মানুয়ায়ী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অর্ন্তবর্তী সরকারের দায়িত্ব পালন করবেন এটাই স্বাভাবিক।

এরপরই দেশের রাজনৈতিক সমস্যা সমাধানে অর্ন্তবর্তী সরকারের অধীনে আলাপ আলোচনা হবে। কীভাবে সবার অংশগ্রহণে নিরপেক্ষ ও স্বচ্ছ নির্বাচন করা যায় সে বিষয় নিয়ে আলোচনা করা হবে বলে জানান মন্ত্রী।

বৃহস্পতিবার বিকেলে মুন্সীগঞ্জ সদর উপজেলার বজ্রযোগিনীতে বৌদ্ধ ধর্মের দ্বিতীয় ভিক্ষু জ্ঞান তাপস অতীশ দ্বীপংকর স্মৃতি কমপ্লেক্সের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন অনুষ্ঠান শেষে বাংলানিউজের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, “৪৮ ঘণ্টার আল্টিমেটাম যখন হাওয়ায় উড়ে যায়, তখন হেফাজতে ইসলাম দিয়ে দেশে বিশেষ পরিস্থিতি তৈরি করতে চেষ্টা চালিয়ে ছিলেন খালেদা জিয়া। কিন্তু সে পরিকল্পনা নস্যাৎ হয়েছে।”
drhasan
সভা-সমাবেশ নিষিদ্ধ করা প্রসঙ্গে এক প্রশ্নের জবাবে বন ও পরিবেশ মন্ত্রী বলেন, “বিএনপি ও জামায়াত সভা সমাবেশের নামে সারাদেশে নৈরাজ্যকর পরিস্থিতি সৃষ্টি করেছে। বিশেষ করে ঢাকা শহরে নৈরাজ্য, সন্ত্রাস, গাড়ি পোড়ানো, যাত্রী ও চালককে পেট্রোল ঢেলে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে হত্যা করা, ব্যাংক লুট করাসহ ৫ মে’র নৈরাজ্যকর পরিস্থিতি দেশবাসী দেখেছে।”

তিনি বলেন, “এসব ঘটনার কারণে সভা সমাবেশের নামে কেউ যাতে দেশে নৈরাজ্য সৃষ্টি করতে না পারে সে জন্য সভা সমাবেশে ওপর কড়াকড়ি আরোপ করা হয়েছে। তবে নিষেধাজ্ঞা বলতে যা বোঝায় সরকারিভাবে সেরকম কোনো প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়নি।”

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম