স্কুল ছাত্র ও সিএনজি চালকের লাশ উদ্ধার

মুন্সীগঞ্জে স্কুল ছাত্রসহ ২ যুবকের লাশ পাওয়া গেছে। ২ জনেরই হত্যার ঘটনা রহস্যজনক। তারা হত্যা-না আত্মহত্যা করেছে পুলিশ তা জানাতে পারেনি। বৃহস্পতিবার সকালে সিরাজদিখান উপজেলার নয়ানগর গ্রামে স্কুল ছাত্র রাকিব (১৫) ও গজারিয়া উপজেলার হোসেন্দি বাজার (শেহের বাজার) গ্রামের সিএনজি চালক আব্দুর রশীদ ওরফে ফালানের (২৪) মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়। নিহত স্কুল ছাত্র রাকিব নয়ানগর গ্রামের শামছুল মাঝির ছেলে। সে রাজানগর উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণীর ছাত্র। অপর নিহত সিএনজি চালক ফালান হোসেন্দি বাজার এলাকার প্রয়াত সাইজউদ্দিনের ছেলে।

এলাকাবাসী জানান, মা ও বাবার সঙ্গে অভিমান করে স্কুলছাত্র রাকিব বুধবার দিবাগত রাতের যে কোন সময় আত্মহত্যা করে। পরে বৃহস্পতিবার সকালে তার মৃতদেহ বাড়ির পাশের কড়ই গাছ থেকে ঝুলন্ত অবস্থায় উদ্ধার করে দুপুরে স্বজনরা তাকে দাফন করে ফেলেন।


এ ব্যাপারে সিরাজদিখান থানার ওসি মো. আবুল বাসার জানান, রাকিবের মৃত্যু স্বাভাবিক। সে হাঁপানি রোগে ভুগতেছিল। স্বজনরা তার লাশ জানাযা শেষে দাফন করে ফেলেছে। এদিকে গজারিয়ায় নিহত সিএনজি চালক ফালানের স্বজনরা জানান, অবিবাহিত ফালান বুধবার রাত সাড়ে ১০ টার দিকে ঘর থেকে বের হয়। পরদিন বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৬ টার দিকে বাড়ির পাশের পুকুরের কাছ থেকে তার মৃতদেহ পাওয়া যায়। তার শরীরের কোথাও আঘাতের চিহ্ন নেই। এলাকায় তার কোন শক্রও ছিল না। তবে, পরিকল্পিতভাবে তাকে কেউ হত্যা করে থাকতে বলে তার স্বজনরা দাবি করেছেন। এ ব্যাপারে গজারিয়া থানার ওসি জাহাঙ্গীর হোসেন জানিয়েছেন, বুধবার এলাকাবাসী তার অস্বাভাবিক চলাফেরা দেখেছেন। তবে- সে আত্মহত্যা করেছে নাকি তাকে হত্যা করা হয়েছে ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন পাওয়ার পর জানা যাবে বলে তিনি জানান।

জাস্ট নিউজ