মেঘ – ব.ম শামীম

মেঘ তুমি সকালেই এসে,ঘারো অন্ধকার নিয়ে
আমার হৃদয়ের অবয়ব খুঁেজ যেন পাই তোমার মাঝে।
তুমি ঝরে যাও ক্লান্তিহীন প্রকৃতির মাঝে,
তোমার মতো আমিও ঝরি সীমাহীন হৃদয়ের গহরে।

মেঘ তোমারতো অর্বিভাব হয় প্রকৃতির রুদ্ধ জালার পরে
হৃদয়ের রক্তক্ষরনের ধারারতো জন্মতো তোমার মতো করে।
তোমার ঝড়ে যাওয়ার প্রশান্তি আনে প্রকৃতির বুকে
তবে আমার হৃদয়ের রক্ত ক্ষরনওকি তেমন প্রশান্তি আনে কারো মনে?


মেঘ তুমিতো ঝড়ও হও ভেঙ্গে নাও অজস্র প্রাননাথের বুকের অঙ্গন।
তোমার রুদ্ধশ্বাসের তোরে ভেঙ্গে ফেলো সব।
আমারও এখোন কেন জানি ইচ্ছে হয় ঝড় হতে তোমার মতো,
ভেঙ্গে ফেলতে এ প্রথিবীর সব ভালোবাসার ঘর।

মেঘ তোমার রুদ্ধ কন্ঠের হাহকার ধনি
তুমি গুমরে উঠো বজ্ররুপে আর্তনাদ হয়ে উঠো চিৎকারী।
আমার হৃদয় অন্তরালের ব্যাথার চেয়ে তোমার ব্যাথার গভিরতা কি বেশি?
তুমিতা প্রকাশ করতে পারো, বলো আমি কি করে তা করি?

মেঘ তুমি সকালেই এসো, জড়ো বৃষ্টি হয়ে আমার জানালার পাশে
আমার যৌবনের শুরুর মতোই।
যে প্রেম প্রভাতে এসে ঝড়ে গেছে সকালের শুরুতেই
আমি তার ঘ্রান নিবো তোমার ঝরে যাওয়ার মাঝে।