বিয়ে বাড়িতে ডাকাতি করে পালানোর সময় ডাকাত গ্রেফতার

mathpara dakatiমালামাল উদ্ধার
মুন্সীগঞ্জ শহরের মাঠপাড়ার বিয়ে বাড়িতে ডাকাতি হয়েছে। বৃহস্পতিবার রাত পৌনে ২টা থেকে আধা ঘন্টা ধরে অস্ত্রের মুখে এই লুটপাট চলে।

প্রবাসী হাজী নেকবর জমাদ্দারের কন্যার বিয়ের আয়োজন থেকে ঘুমন্ত লোকজনকে বেধে রেখে ও মারপিট করে ডাকাতদল ৩০ ভরি স্বর্ণ, ১৫টি মোবাইল ও ১ লাখ ২০ হাজার টাকাসহ মূল্যবান সামগ্রী লুট করে নেয়।

পরে রাত সাড়ে ৩টার দিকে পুলিশ মুক্তারপুর সেতু থেকে ইসলাম (৩৩) ও শফিকুল (৩৫) নামের দু’ডাকাতকে গ্রেফতার এবং লুণ্ঠিত প্রায় তিন ভরি স্বর্ণ ও ৫টি মোবাইল উদ্ধার করে।

গ্রেফতারকৃতদের বরাদ দিয়ে সহকারী পুলিশ সুপার তারিকুল ইসলাম জানান, গাজীপুরের টঙ্গী এলাকা থেকে আট জন ও যাত্রাবাড়ি থেকে দু’ জন মোট ১০ জনের ডাকাত দল সিএনজি স্কুটার নিয়ে ডাকাতি করতে এখানে আসে। তবে বাকি আট ডাকাতকে গ্রেফতার এবং লুন্ঠিত অন্যান্য মালামাল ও ডাকাতদের ব্যবহৃত অস্ত্র-স্কুটার উদ্ধারের চেষ্টা চলছে।

গ্রেফতারকৃত গাজীপুরের কালীগঞ্জ উপজেলার বালিগাঁও গ্রামের বজলু মিয়ার পুত্র ইসলাম (৩৩) ও কুমিল্লার লাঙ্গল কোর্টের আব্দুর রহমানের পুত্র শফিকুল (৩৫) দীর্ঘদিন ধরে আন্তঃজেলা ডাকাত দলের সাথে জড়িত বলে পুলিশের কাছে স্বীকার করেছে।

গ্রেফতারকৃত ডাকাতদ্বয় জানায়, তারা অন্য বাড়িতে ডাকাতি করতে যাওয়ার সময় পথে বিয়ে বাড়ি দেখে প্রথমে দু’জন সেখানে গিয়ে রাত দেড়টার দিকে রেকি করে। ডাকাতির অনুকূল পরিবেশ পেয়ে একটু পরেই আকস্মিক লুটপাট শুরু করে।

সম্প্রতি শহরের রনছ, দেওভোগ ও সর্দারপাড়ায় আরও তিন বাড়িতে বড় ধরণের ডাকাতি সংঘটিত হয়। মূল জেলা শহরে ঘন ঘন এই ডাকাতির ঘটনায় এলাকায় আতঙ্ক বিরাজ করছে।

মুন্সীগঞ্জ নিউজ

====================

বিয়ে বাড়িতে ডাকাতি, আটক ২

মুন্সিগঞ্জে বিয়ে বাড়িতে ডাকাতি করে পালানোর পর আশপাশের এলাকায় অভিযান চালিয়ে দুই ডাকাতকে আটক করেছে পুলিশ। শুক্রবার ভোরে মুক্তারপুর এলাকা থেকে তাদের আটক করা হয়। এসময় তাদের কাছ থেকে দুই লাখ টাকা মূল্যের স্বর্ণালঙ্কার ও ৫টি মোবাইল সেট উদ্ধার করা হয়। আটকরা হলেন কুমিল্লা জেলার শফিকুল ইসলাম (৩৫) ও গাজীপুরের ইসলাম (৩২)।

সদর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) সুলতানউদ্দিন বাংলানিউজকে জানান, বৃহস্পতিবার রাত ২টার দিকে মুন্সিগঞ্জ শহরের মাঠপাড়া এলাকার মফিজুল মাস্টারের ভাড়াটিয়ার বিয়ের অনুষ্ঠানে ডাকাতি করে স্বর্ণালঙ্কারসহ বিভিন্ন মালামাল নিয়ে যায়। খবর পেয়ে পুলিশ মুন্সিগঞ্জ শহর ও আশপাশের এলাকায় অভিযান শুরু করে।


এসময় শহরের উপকণ্ঠ মুক্তারপুর এলাকা থেকে প্রথমে শফিকুল নামের এক ডাকাতকে আটক করা হয়। তার দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে একই এলাকা থেকে ডাকাত ইসলামকে আটক ও লুণ্ঠিত স্বর্ণালঙ্কার উদ্ধার করা হয়।

সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. ইয়ারদৌস বাংলানিউজকে জানান, আটক দুই ডাকাতকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
==================

মুন্সীগঞ্জে বিয়েবাড়িতে ডাকাতি, ২ ডাকাত গ্রেফতার

গভীর রাতে মুন্সীগঞ্জে বিয়েবাড়িতে দুর্ধর্ষ ডাকাতি হয়েছে। এ সময় ডাকাতরা অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে ২৭ ভরি সোনার গহনা ও ১৫টি মোবাইল লুট করে নিয়ে যায়।

পুলিশ ৩ ভরি স্বর্ণ ও ৪টি মোবাইলসহ ২ ডাকাতকে গ্রেফতার করে।

বৃহস্পতিবার রাত ২টার দিকে শহরের মাঠপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। গ্রেফতারকৃত ডাকাতরা হচ্ছে- কুমিল্লার ্ললাঙ্গলকোট এলাকার আব্দুর রহমানের ছেলে শফিকুল ইসলাম (৪০) ও নরসিংদীর পলাশ উপজেলার সেকান্দরদী গ্রামের বজলুর রহমানের ছেলে ইসলাম মিয়া (৩৮)।

জানা গেছে, শহরের মাঠপাড়া এলাকার সৌদি আরব প্রবাসী মফিজল মাস্টারের মেয়ে মৌসুমী আক্তারের সঙ্গে চরাঞ্চলের মোল্লাকান্দি ইউনিয়নের আশুরান গ্রামের সিদ্দিক মিজির ছেলে শাহীন আলমের গতকাল শুক্রবার বিয়ে হয়।

এ উপলক্ষে আগের দিন বৃহস্পতিবার রাতে শহরের মাঠপাড়ার জয়ন্ত ভিলার ভাড়া বাসায় মৌসুমী আক্তারের গায়ে হলুদ সম্পন্ন হয়। পরে রাত ২টার দিকে ৮-১০ জনের একদল ডাকাত বাড়ির কলাপসিবল গেটের তালা ভেঙে ভেতরে প্রবেশ করে।

এ সময় ডাকাত দল পরিবারের সকলকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে ২৭ ভরি সোনার গহনা ও ১৫টি মোবাইল লুট করে নিয়ে যায়।

এদিকে শুক্রবার ভোর ৫টার দিকে শহরের উপকণ্ঠ মুক্তারপুর সেতুর নিচ এলাকার মালিপাথর থেকে ২ ডাকাতকে ৩ ভরি সোনার গহনা ও ৪টি মোবাইল ফোন সেটসহ পুলিশ তাদের গ্রেপ্তার করে।

জাস্ট নিউজ