হেফাজত মুন্সীগঞ্জ ঢাকার মহাসমাবেশে ১০ হাজার কর্মী

বিচ্ছিন্ন দক্ষিনবঙ্গ ও ঢাকা-মাওয়া মহাসড়ক
শেখ মো.রতন: মুন্সীগঞ্জে হেফাজতে ইসলামের অন্তত ১০ হাজার নেতাকর্মী পায়ে হেটে রোববার বিকেলে ঢাকার মহাসমাবেশে যোগ দিয়েছেন। এছাড়া কেরানীগঞ্জ উপজেলার বাবু বাজার ও হাসনাবাদ বুড়িগঙ্গা সেতু এলাকায় অবস্থান নিয়ে ঢাকা অবরোধ সৃষ্টি করে তারা। হেফাজতের অবরোধের মুখে রোববার দিনভর বিচ্ছিন্ন থাকে ঢাকা-মাওয়া মহাসড়ক। একই সঙ্গে রাজধানীর সঙ্গে সড়ক পথে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে দেশের দক্ষিনবঙ্গের ২৩ জেলা। বিকেল ৩ টার দিকে হেফাজতে ইসলামের কয়েক হাজার কর্মী পায়ে হেটে ঢাকার মহাসমাবেশ স্থলে পৌছেন বলে দাবী করে সিরাজদীখান উপজেলা হেফাজতে ইসলামের সভাপতি মাওলানা ওবায়দুল্লাহ কাশেমী। তিনি জানান, সিরাজদীখানের কুচিয়ামোড়া থেকে খন্ড খন্ড ভাবে ঢাকা অবরোধে অংশ নিতে হেফাজতের কর্মীদের নেতৃত্ব দেন ঢাকার ৩ উপজেলা ও মুন্সীগঞ্জের ৫ উপজেলার সমন্বয়ে গঠিত হেফাজতে ইসলামের কমিটির সভাপতি মধুপুরের পীর মাওলানা আব্দুল হামিদ। তিনি আরো জানান, জেলার সিরাজদীখান উপজেলার কুচিয়ামোড়া কলেজ মাঠে রোববার ভোরে ফজরের নামাজ আদায় করে ঢাকা ও মুন্সীগঞ্জের ৮ উপজেলার ৬ হাজার হেফাজতের কর্মী। পরে ভোর থেকে শুরু করে সকাল ৮ টা পর্যন্ত খন্ড খন্ড ভাবে ঢাকা মহাসমাবেশের উদ্দেশ্যে পায়ে হেটে রওনা দেন ৬ হাজার হেফাজতের কর্মী। এই ৬ হাজার কর্মীর মধ্যে একটি অংশ পায়ে হেটে ঢাকার কেরানীগঞ্জ উপজেলার বাবু বাজার ও কেরানীগঞ্জের পোস্তগোলা বুড়িগঙ্গা সেতু এলাকায় অবস্থান নিয়ে ঢাকা অবরোধ করে।

এদিকে, ঢাকা-মাওয়া মহাসড়কে জেলার লৌহজং উপজেলার মাওয়াঘাটে, ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে গজারিয়ায় ও ঢাকা-মুন্সীগঞ্জ সড়কে জেলা শহরে অঘোষিত পরিবহন ধর্মঘট চলে। এতে পরিবহন সংকটের কবলে মুন্সীগঞ্জের সিরাজদীখান, গজারিয়ায় ও জেলা শহর থেকে হেফাজতে ইসলামের ৭ সহস্রাধিক নেতাকর্মী পায়ে হেটে ও ট্রলার যোগে ঢাকা অবরোধ ও মহাসমাবেশে ছুটে যায়।

ঢাকা-মুন্সীগঞ্জ সড়কে বাস চলাচল বন্ধ থাকায় জেলা সদরের হেফাজতে ইসলামের সভাপতি মাওলানা সিদ্দিকুর রহমানের নেতৃত্বে প্রায় এক হাজার কর্মী ট্রলারযোগে ঢাকার সদরঘাটের উদ্দেশ্যে রওনা দেয়। এক হাজার হেফাজতের কর্মী জেলা শহরের উপকন্ঠ মুক্তারপুর পুরাতন ফেরী ঘাট ও শহরের কাছে হাটলক্ষীগঞ্জ লঞ্চঘাট থেকে ট্রলারযোগে ঢাকা মহাসমাবেশে অংশ নেন।

তাছাড়া ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে জেলার গজারিয়া উপজেলার হোগলাকান্দি মাদ্রাসার ৫ শতাধিক হেফাজতের নেতাকর্মী বাস না পেয়ে পায়ে হেটে ঢাকার মহাসমাবেশে যোগ দিয়েছেন। হেফাজতের নেতাকর্মী জানান, রোববার বিকেল সাড়ে ৩ টার দিকে ৫ শতাধিক নেতাকর্মী ঢাকার মহাসমাবেশ স্থলে পৌছতে সক্ষম হয়েছেন।

এর আগে সকাল ৮ টার দিকে হোগলাকান্দি নামক স্থানে হেফাজতে ইসলামের কর্মীরা সমবেত হলে পুলিশ বাঁধা প্রদান করে। এ সময় পুলিশের সঙ্গে হেফাজতের কর্মীদের কথা কাটাকাটি হয়। পরে পুলিশের বাঁধা শিথিল হলে বেলা ১০ টার দিকে ৫ শতাধিক নেতাকর্মী ঢাকার উদ্দেশ্যে পায়ে হেটে রওনা দেয়।

টাইমস্ আই বেঙ্গলী