সাম্প্রদায়িক ও উগ্র ধর্মান্ধতাকে প্রতিহত করার উপায় উন্নত মানবতাবাদী চিন্তা

lalonsangaসৈয়দ আবুল মকসুদ
বিশিষ্ট কলাম লেখক, গবেষক ও পরিবেশবিদ সৈয়দ আবুল মকসুদ বলেছেন, সাম্প্রদায়িক ও উগ্র ধর্মান্ধতাকে প্রতিহত করার সবচেয়ে কার্যকর উপায় হচ্ছে উন্নত মানবতাবাদী চিন্তা ধারার চর্চা। লালন শাহের চিন্তা ধারা ধর্মবিরোধী নয়। তা সব ধর্মের মানুষ অনুশীলন করে সমাজে শান্তি ও সম্প্রতি প্রতিষ্ঠা করতে পারে। বর্তমান অশান্ত পৃথিবীতে তার চিন্তাধারা খুবই প্রাসঙ্গিক।

তিনি বুধবার রাতে মুন্সীগঞ্জ সদর উপজেলার কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে ‘আপন খবর’ নামে সংগঠনের উদ্যোগে ‘লালন শাহের সাধু সঙ্গের’ অনুষ্ঠানে বক্তব্য প্রদান কালে এইসব কথা বলেন।


আবুল মকসুদ আরও বলেন, মুন্সীগঞ্জ তথা বিক্রমপুর অনেক কৃতি সন্তানের জন্ম দিয়েছে। মুক্তিযুদ্ধের সময় মুন্সীগঞ্জের সরকারি হরগঙ্গা কলেজেই প্রথম বাংলাদেশের পতাকা উড়ানো হয়। তিনি আরও বলেন, লালনকে নিয়ে এখন সারা বিশ্বের মানুষ চিন্তাভাবনা করছেন। বাংলাদেশে কুষ্টিয়ার পরে এই মুন্সীগঞ্জ হচ্ছে লালনের দ্বিতীয় তীর্থ স্থান।
lalonsanga
‘আপন খবর’ সংগঠনের সভাপতি তানভীর হাসানের সভাপতিত্বে আলোচনায় অংশ গ্রহণ করেন জেলা প্রশাসক সাইফুল হাসান, সিভিল সার্জন ডা: বনদীপ লাল দাস, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট এস এম মাহফুজুল হক, মুন্সীগঞ্জ পৌরসভার প্রাক্তন মেয়র এড. মুজিবুর রহমান, মিরকাদিম পৌর মেয়র শহীদুল ইসলাম শাহীন, সরকারি হরগঙ্গা কলেজের প্রাক্তন অধ্যক্ষ অধ্যাপক প্রবীর কুমার গাঙ্গুলী, দরবেশ নহির শাহ, সনাকের সভাপতি খালেদা খানম, পিপি এডভোকেট আব্দুল মতিন, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি মতিউল ইসলাম, প্রেসক্লাবের সভাপতি মীর নাসির উদ্দিন, সদর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার এম এ কাদের, আপন খবরের সাধারণ সম্পাদক কবির হোসেন প্রমুখ।

এর আগে অনুষ্ঠান শুরুর আগে ঢাকার সাভারে ভবন ধ্বসে মর্মান্তিক দুর্ঘটনায় ব্যাপক নারী-পুরুষের মৃত্যুর ঘটনায় এক মিনিট নিরবতা পালন করে অনুষ্ঠান শুরু করা হয়।

রাত ৯ টা থেকে লালন শাহ সাধুসঙ্গের গান শুরু হয়ে গভীর রাত ২ টা পর্যন্ত চলে। সাধুসঙ্গের গান পরিবেশন করেন, কুষ্টিয়াসহ দেশের খ্যাতিমান সাধুগুরু, লালন ও বাউল শিল্পীরা।

নিউজএক্সপ্রেস

ছবি – তাহের মাহমুদ