জিপসি ফুড কর্ণারে হামলা : আহত ২

মুন্সীগঞ্জে একটি ফুড কর্ণারে হামলা হয়েছে। এ সময় দুস্কৃতকারীরা দোকানের চেয়ার-টেবিল ভাঙ্‌চুর করে দোকানের ক্যাশ বাঙ থেকে নগদ ৭৪ হাজার টাকা লুট করে নিয়ে যায়। মঙ্গলবার রাত ৯টার দিকে শহরের প্রাণকেন্দ্র জেলা শিল্পকলা একাডেমি সংলগ্ন জিপসি ফুড কর্ণারে এ ঘটনা ঘটে। এসময় সন্ত্রাসীদের হামলায় দোকানের ক্যাশিয়ার মহসিন (২৫) ও কর্মচারি রাসেল (১৮) গুরুতর আহত হয়। তাদেরকে মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

শহর ছাত্রলীগের সভাপতি মালেকুন মাকসুদ বিপুল, ২ জন বিএনপি সমর্থিত সাংবাদিকসহ ৫ জনের মালিকানাধীন ফাস্ট ফুডের এ দোকানটিতে পরিকল্পিতভাবে হামলা হয়েছে বলে দাবি করা হয়েছে।


জানা যায়, রাতে ফুড কর্নারে এসে অপু নামের এক ব্যক্তি খাবার খায়। পরে খাবারের বিল দেয়ার সময় ৫শ’ টাকার ভাংতি নিয়ে দোকানের কর্মচারি মহসিন ও রাসেলের সঙ্গে অপুর কথাকাটাকাটি হয়।

মুহুর্তেই অপুর সঙ্গে তার ২ ভাই রানা, দ্বীপসহ ১০-১৫ জনের একদল যুবক সশস্ত্র অবস্থান নেয় দোকানের ভেতর। তারা দোকানের ওই ২ কর্মচারিকে মারধর করে ক্যাশ থেকে নগদ টাকা লুট করে।

এ সময় তারা দোকানের চেয়ার-টেবিল ভাঙ্‌চুর করে। খবর পেয়ে পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে ছুটে যায়।

জাস্ট নিউজ
=============

মুন্সীগঞ্জে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা, সাংবাদিকসহ আহত ৩

তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে মুন্সীগঞ্জ শহরের পুরাতন কাচারী এলাকাস্থ জিপসি ফাস্ট ফুড কর্ণার নামের একটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা চালিয়েছে একদল বখাটে যুবক।

মঙ্গলবার রাত পৌনে ৯টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

এ সময় ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের ক্যাশবাক্স থেকে প্রায় ১৫ হাজার টাকা লুট করে নিয়ে যায় তারা।

হামলায় মাইটিভির সাংবাদিকসহ তিন জন আহত হয়েছেন।

আহতদের মধ্যে দোকান কর্মচারী রাসেলকে (১৪) মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এছাড়া মাইটিভির মুন্সীগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি মঈনউদ্দিন আহমেদ সুমন (৩৫) ও কর্মচারী মহসিনকে (২৮) প্রাথমিক চিকিসা দেওয়া হয়েছে।

খবর পেয়ে সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ও পুলিশ কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

তবে ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের আটক করেও পুলিশ তাদের ছেড়ে দিয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন মাইটিভির সাংবাদিক মঈনউদ্দিন সুমন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, টাকা ভাঙতিকে কেন্দ্র করে তর্কবির্তকের এক পর্যায়ে শহরের কোটগাও এলাকার যুবক অপু ও রানাসহ একদল বখাটে ও মাদকাসক্ত যুবক ধারালো অস্ত্র নিয়ে কর্মচারী মহসিন ও রাসেলের উপর হামলা চালিয়ে রক্তাক্ত জখম করে। কর্মচারীদের বাচাঁতে দোকান মালিকপক্ষের একজন মাইটিভির সাংবাদিক এগিয়ে গেলে তাকেও মারধর করে বখাটে যুবকরা।

বুধবার সকালে সরেজমিন দেখা গেছে, জিপসি ফাস্ট ফুড কর্ণার নামের প্রতিষ্ঠানটির নিচতলায় রক্তের ফোটা পড়ে আছে, চেয়ার টেবিল এলোমেলো ভাবে পড়ে আছে।

যুবলীগ ও ছাত্রলীগ নেতা ও দুই সাংবাদিকের যৌথ মালিকানাধীন জিপসি ফাস্ট ফুড কর্ণার এখন বন্ধ রাখা হয়েছে।

এ প্রসঙ্গে বুধবার সদর থানার ওসি মো. শহীদুল ইসলাম বাংলানিউজকে জানান, এ ঘটনায় রাতেই মামলা রুজু করা হয়েছে। জড়িতদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
================

মুন্সিগঞ্জে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে সরকার দলীয় সন্ত্রাসীদের হামলা, সাংবাদিকসহ আহত ৩

তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে মুন্সিগঞ্জ শহরের পুরাতন কাচারী এলাকাস্থ জিপসি ফাস্ট ফুড কর্ণার নামের একটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে মঙ্গলবার রাত ৯টায় রানা, অপুর নেতৃত্বে ১০/১২ জনের সরকার দলীয় সন্ত্রাসী গ্রুপ হামলা চালিয়েছে। সন্ত্রাসীরা হামলা চালিয়ে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের ক্যাশবাক্স থেকে প্রায় ১৫ হাজার টাকা লুট করে নিয়ে যায় তারা। হামলায় মাইটিভির সাংবাদিকসহ তিন জন আহত হয়েছেন। আহতদের মধ্যে দোকান কর্মচারী রাসেলকে (১৪) মুন্সিগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এছাড়া মাইটিভির মুন্সিগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি মঈনউদ্দিন আহমেদ সুমন (৩৫) ও কর্মচারী মহসিনকে (২৮) প্রাথমিক চিকিসা দেওয়া হয়েছে।
খবর পেয়ে সদর থানার অফিসার্স ইনচার্জ মো. শহিদুল ইসলামসহ পুলিশ কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। তবে ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের আটক করেও পুলিশ তাদের ছেড়ে দিয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন মাইটিভির সাংবাদিক মঈনউদ্দিন সুমন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, টাকা ভাংতিকে কেন্দ্র করে তর্কবির্তকের এক পর্যায়ে শহরের কোটগাঁও সরকার দলীয় ক্যাডার অপু ও রানাসহ ১০/১২ জনের একদল বখাটে ও মাদকাসক্ত যুবক ধারালো অস্ত্র নিয়ে কর্মচারী মহসিন ও রাসেলের উপর হামলা চালিয়ে রক্তাক্ত জখম করে। কর্মচারীদের বাচাঁতে দোকান মালিকপক্ষের একজন মাইটিভির সাংবাদিক এগিয়ে গেলে তাকেও মারধর করে বখাটে যুবকরা।

বুধবার সকালে সরেজমিন দেখা গেছে, জিপসি ফাস্ট ফুড কর্ণার নামের প্রতিষ্ঠানটির নিচতলায় রক্তের ফোটা পড়ে আছে, চেয়ার টেবিল এলোমেলো ভাবে পড়ে আছে। যুবলীগ ও ছাত্রলীগ নেতা ও দুই সাংবাদিকের যৌথ মালিকানাধীন জিপসি ফাস্ট ফুড কর্ণার এখন বন্ধ রাখা হয়েছে।

এ ব্যাপারে ছাত্রলীগের শহর সভাপতি ও জিপসি ফাস্টফুড পরিচালক মালেকুন মাকসুদ বিপুল জানান, যারা এ ধরনের গর্হিত কাজ করেছে তাদের আইনগত বিচার হওয়া প্রয়োজন। তাদের বিচার না হলে তারা এ ধরনের ঘটনা ঘটিয়ে যাবে বলে তিনি আশংকা করছেন।

এ প্রসঙ্গে বুধবার সদর থানার ওসি মো. শহীদুল ইসলাম জানান, এ ঘটনায় রাতেই মামলা রুজু করা হয়েছে। জড়িতদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

ওয়ান নিউজ
==================