লৌহজংয়ে গলা টিপে বিয়েতে রাজী করানোর চেষ্টা: ১বছরের জেল

faisalবুধবার মুন্সীগঞ্জের লৌহজং উপজেলা ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ আসাদুজ্জামান ইভটিজিং ও গায়ে হাত দেওয়ার অভিযোগে এক ব্যক্তিকে ১ বছরের কারাদন্দ্ব দিয়েছে। এর পূর্বে লৌহজংয়ের উত্তর গাওদিয়া গ্রামে ঘরের দরজায় তালা লাগিয়ে রাবেয়া খানম(১৩) নামে এক অষ্টম শ্রেনী পড়–য়া স্কুল ছাত্রীকে গলাটিপে ধরে জোর করে বিয়ের প্রস্তাবে রাজি করানোর অভিযোগে ফয়সাল শেখ(২৬) নামে দাগী ওই ইভটেজারকে বুধবার সকালে গ্রেফতার করে পুলিশ। গ্রেফতারকৃত ফয়সাল লৌহজং থানায় প্রায় একই ধরনের একটি মামলার আসামী। তার বিরুদ্ধে এলাকায় ইভটিজিংয়ের ব্যাপক অভিযোগ রয়েছে। মেয়েদের ইভটিজিং করার দায়ে কয়েক দফা শালিশ বৈঠকও হয়েছে তার বিরুদ্ধে।

রাবেয়ার মা লাভলী বেগম জানান, বুধবার সকাল ৭ টার দিকে তার মেয়ে রাবেয়া ঘরে শুয়ে ছিল। এসময় পাশের বাড়ির জব্বার শেখের বখাটে ছেলে ফয়সাল শেখ হঠাৎ করে ঘরে ঢুকে ভেতর থেকে তালা বন্ধ করে দেয়। ফয়সালের কু প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় সে রাবেয়াকে গলা টিপে ধরে। এসময় রাবেয়ার ডাক চিৎকারে বাড়ির লোকজন ছুটে গিয়ে শাবল দিয়ে ঘরের দরজা ভেঙে রাবেয়াকে উদ্ধার করে। একই সময়ে পুলিশ এসে ফয়সালকে হাতেনাতে গ্রেফতার করে।


লাভলী বেগম আরো জানান, তারা ঢাকায় বসবাস করতেন। ২ বছর পূর্বে তার স্বামী রুহুল আমিনের গ্রামের বাড়ি উত্তর গাওদিয়া গ্রামে চলে আসার পর থেকেই ফয়সাল তার মেয়েকে উতক্ত করতো। স্কুলে যাবার পথে কখনও হাত কখনও ওড়না ধরে টান দিতো। এই নিয়ে হাড়িদিয়া উচ্চ বিদ্যালয় কমিটিসহ স্থানীয়ভাবে শালিশ বৈঠক করেও তাকে বিরত রাখা যায়নি।

লৌহজং থানার ওসি জাকিউর রহমান জানান, গ্রেফতারকৃত ফয়সাল একজন বখাটে দাগী ইভটেজার। মেয়েদের উতক্ত করাই তার স্বভাব। প্রায় ২ বছর আগে একই গ্রামের আবুল দেওয়ানের মেয়ে মুক্তা আক্তারের বিয়ের দিন বর যাত্রীর নিকট থেকে মুক্তাকে তুলে নিতে বর যাত্রীর প্রতি আক্রমন চালিয়ে মুক্তাকে ছুড়িকাঘাত করে। এ ব্যপারে একটি মামলা হলে আদালত থেকে বর্তমানে সে জামিনে রয়েছে। মামলাটি বর্তমানে বিচারাধীন। তাছাড়া আকলিমা নামে আর এক মেয়েকে স্কুলে যাবার পথে উত্যাক্ত করায় প্রায় দেড় বছর আগে স্থানীয়ভাবে শালিশ বৈঠকে তাকে ২৫টি জুতার বাড়ি দেয়া হয়। তাকে গ্রেফতারের পর উপজেলা ভ্রাম্যমান আদালতের ম্যাজিষ্ট্রেট মো. আসাদুজ্জামান তাকে ১ বছরের কারাদন্ডাদেশ দেন।

মুন্সীগঞ্জ নিউজ