ধলেশ্বরীতে উদ্ধার হওয়া ২ লাশের পরিচয় মেলেনি

২৪ ঘন্টার ব্যবধানে ধলেশ্বরী নদীতে হাত-পা ও চোখ বাঁধা অবস্থায় উদ্ধার হওয়া অজ্ঞাত পরিচয়ের ২ যুবকের লাশের পরিচয় মেলেনি। বেওয়ারিশ লাশ হিসেবেই পচে গলে মরদেহ ২টি মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পড়ে রয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে সর্বশেষ একটি লাশের ময়নাতদন্ত করেছেন জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) ডা. এহসানুল করিম। লাশ ২টি দাফনের জন্য হাসপাতাল কর্তপক্ষ মুন্সীগঞ্জ পৌরসভাকে চিঠি দিয়েছেন। নিহতের পরিচয় উদ্ঘাটনের জন্য আগামী ২-১ দিন অপেক্ষা করে পরিচয় না পাওয়া গেলে বেওয়ারিশ লাশ হিসেবেই মরদেহ ২টি দাফন করা হবে বলে অফিসার আরএমও ডা. এহসানুল করিম জানিয়েছেন।

তিনি আরও জানান, ২টি লাশই পচে গলে নষ্ট হয়ে গেছে। দু’জনকেই একই কায়দায় হত্যা করা হয়েছে। মাথায় ও পেটে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

জানা গেছে, গত বুধবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে ধলেশ্বরী নদীর চরকিশোরগঞ্জ মোল্লাপাড়া এলাকার ধলেশ্বরী নদী থেকে অজ্ঞাত পরিচয়ের এক যুবকের (৩২) লাশ পুলিশ উদ্ধার করে। এর আগের দিন মঙ্গলবার একই সময়ে সামান্য দূরে একই অবস্থায় হাটলক্ষীগঞ্জস্থ বেড়িবাঁধ এলাকা থেকে অপর অজ্ঞাত যুবকের (৩৫) আরো একটি লাশ উদ্ধার করা হয়।

মুন্সীগঞ্জ সদরের মুক্তারপুর নৌ-পলিশ ফাড়ির ইনচার্জ এসআই মোশারফ হোসেন জানান, ভারি পাথর বেঁধে লাশ ২টি নদীতে ফেলা হলে স্রোতের তোড়ে শহর লাগোয়া মোল্লাপাড়া ও হাটলক্ষীগঞ্জ এলাকায় এসে ভেসে উঠে। তাদের অন্য কোথাও হত্যা করা হয়েছে। এরপর দুস্কৃতকারীরা এ লাশ নদীতে ফেলে দেয়। নিহতদের হাত-পা শক্ত দঁড়ি দিয়ে ও চোঁখ গামছা দিয়ে বাঁধা ছিল।

ধারণা করা হচ্ছে, একই দিনে একই কিলাররা তাদের দু’জনকে এক সঙ্গে হত্যা করে লাশ নদীতে ফেলে রেখে যায়।

জাস্ট নিউজ