ঢাকা-মাওয়া মহাসড়কে অজ্ঞান পার্টির খপ্পড়ে সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেলসহ ৪ জন

বুধবার ঢাকা-মাওয়া মহাসড়কে অজ্ঞান পার্টি খপ্পড়ে পড়ে সর্বস্ব খুইয়েছেন সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল ও বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবি নিজামুল হক নিজামসহ ৪ ব্যক্তি। পুলিশ তাকে লৌহজংয়ের মাওয়া বাস টার্মিনাল থেকে অজ্ঞান অবস্থায় উদ্ধার করে পাশ্ববর্তী ষোলঘর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেছে। চার জনের মধ্যে তিন জনের পরিচয় পাওয়া গেছে। এক জন অচেতন অবস্থায় রয়েছেন। তবে পুলিশ দু’জনের কথা স্বীকার করেছে।


লৌহজং থানার ওসি জাকিউর রহমান জানান, সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল নিজামুল হক নিজাম দুপুরে ঢাকার গুলিস্থান থেকে বিআইডব্লিউটিসির একটি বাসে করে মাওয়ার উদ্দেশ্যে রওনা দেন। পথিমধ্যে কুচয়ামোড়া ধলেশ্বরী ব্রিজের নিকট হকারের কাছ থেকে কিছু কিনে খাবার পর সে বাসেই অচেতন হয়ে ঘুমিয়ে পড়ে। এসময় তার পাশের যাত্রী বরিশালের কাউনিয়া থানার চকবাড়িয়া গ্রামের শিক্ষক মাহাবুব সাইদুরও (৩৪) একই খাবার খেয়ে অচেতন হয়ে পড়ে। এসময় অজ্ঞান পার্টির সদস্যরা তাদের সর্বস্ব লুটে নেয়। বাসটি মাওয়ায় এলে স্থানীয় জনতা তাকে উদ্ধার করে পুলিশে খবর দেয়। পুলিশ তাকে উদ্ধার করে পাশ্ববর্তী শ্রীনগর উপজেলার ষোলঘর স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ভর্তি করে। তবে অপর যাত্রী সাপানিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক মাহাবুব এখনও মাওয়া ঘাটে অচেতন অবস্থায় রয়েছে। কিছুক্ষন পর পর তার জ্ঞান ফিরলেও তিনি বার বার জ্ঞান হারাচ্ছিলেন।


তবে স্থানীয় সূত্র বলছে দুই জন নয় অজ্ঞান পার্টি খপ্পরে পড়েছে চার যাত্রী। আরেক যাত্রী সাভারের নরসিংহপুরের হক আলী শরীফের পুত্র গার্মেন্টস কর্মী মঞ্জু শরীফ (৩০)। বাকী একজন মাওয়া ঘাটের পল্টুনে অচেতন অবস্থায় পড়ে থাকায় তাদের নাম পরিচয় জানা সম্ভব হয়নি। তবে পুলিশ দুই জনের কথা স্বীকার করেছে।

উল্লেখ্য সাম্প্রতিক সময়ে ঢাকা-মাওয়া মহাসড়কে অজ্ঞান পার্টির উৎপাত বেড়ে গেলেও এ ব্যাপারে আইন শৃঙ্খলা বাহিনী তেমন কোন পদক্ষেপই নিচ্ছেনা।

সপ্তাহে এখন এরকম ২-৪ জন যাত্রী মাওয়া ঘাটে বাস হেলপাররা উদ্ধার করে বাস স্ট্যান্ডে ফেলে রাখছে। পরে তাদের জ্ঞান ফিরলে স্থানীয় লোকদের মাধ্যমে খবর পেয়ে আত্মীয় স্বজনরা এসে নিয়ে যাচ্ছে।

গত ১লা ফেব্রয়ারি শরিয়তপুর উপজেলার খড়িয়া তলা গ্রামের আবুল খালেক ফকিরের পুত্র লিটন ফকির (৩৮) এ মহাসড়কে অজ্ঞান পার্টি খপ্পরে পরে সর্বস্ব হারিয়েছেন। এরপর ৭ ফেব্রুয়ারি গোপালগঞ্জের শিবনাথ ভক্তের ছেলে প্রশান্ত (২৬) একইভাবে অজ্ঞান পার্টির খপ্পরে পড়ে সর্বস্ব হারান।

মুন্সীগঞ্জ নিউজ