লৌহজংয়ে মেলায় অশ্লীল নৃত্য : জুয়ার আসর

এসএসসি পরীক্ষার্থীদের প্রস্তুতি ব্যাহত
লৌহজং উপজেলার ঘৌড়দৌড়ে মেলার নামে চলছে অশ্লীল নৃত্য এবং গাঁজা ও জুয়ার আসর। এসএসপি পরীক্ষা সত্ত্বে এই মেলা চলমান থাকায় বিস্মত অভিভাবকরা। এসএসসি পরীক্ষার প্রথম দিন রবিবার রাতে অসংখ্য অভিভাবক এই প্রতিবেদকের কাছে ফোন করে ক্ষোভ প্রকাশ করেন। রাত পৌনে ১০টায় বিষয়টি পুলিশ সুপার মো. শাহাবুদ্দিন খানের দৃষ্টি আকর্ষন করা হলে তিনি যথাযথ ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দেন। তবে এই রিপোর্ট লেখার সময়ও উচ্চ স্বরে গান বাজানোসহ অশ্লীল চলছিল।


কদম আলী মস্তানের (রাঃ) নামে গত বুধবার হতে শরু হওয়া ওরসের নামে এই মেলা আগামী বুধবার পর্যন্ত চলবে বলে লৌহজং পুলিশ জানায়। ওরসের কথা বলা হলেও নানা অসামাজিকতা চলছে এখানে। জুয়া খেলার চড়কা, পুতুল নাচ ও ভ্যারাইটি শোর নামে লাইভ ডান্সে শরীরে আর কাপড় থাকে না। এ ভ্যারাইটি শোতে অধিকাংশ দর্শকই উঠতি বয়সের যুবক। উচ্চ স্বরে গানও বাজতে থাকে ভোর রাত পর্যন্ত। এতে এই অঞ্চলে এসএসসি পরীক্ষার্থীদের প্রস্তুতির মারাত্মক বাঘ্যত ঘটছে। ওসিকে মোটা অঙ্কের উৎকোচ দিয়ে থানার অতি কাছের এই মেলায় এসব হচ্ছে বলে অভিযোগ রয়েছে।

লৌহজং থানার ওসি জাকিউর রহমান এই অভিযোগ অস্বীকার করে জানান, পুতুল নাচের আড়ালে কিছু হচ্ছে কি-না আমার জানা নেই। তবে ওরস একটি ধর্মীয় অনুভূতির ব্যাপার। অতিপুরোনো আমল হতে কিছু পাগল ধরনের লোকজন আড়ালে আবডালে গাজা-টাজা টেনে থাকতে পারে।

লৌহজং উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আসাদুজ্জামান জানান, জেলা প্রশাসকের কার্যালয় হতে এখানে শুধু ধর্মীয় কাজের জন্য অনুমোদন দেয়া হয়েছে। তবে এর বাইরে এমনটি হয়ে থাকলে অবশ্যই আমরা ব্যবস্থা নেব।

মুন্সীগঞ্জ নিউজ