টঙ্গীবাড়ীতে যৌতুকের জন্য গৃহবধূকে শাসরুদ্ধ করে হত্যা

ব.ম শামীম: মুন্সীগঞ্জের টঙ্গীবাড়ী উপজেলার সরিষাবন গ্রামে শাসরুদ্ধ করে বুধবার রাতে ৩ মাসের অন্তসত্ত্বা গৃহবধূকে পাষন্ড স্বামীর হত্যা করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় পুলিশ বৃহস্পতিবার লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করছে। জানা গেছে, উপজেলার সরিষাবন গ্রামের নুর আলম এর সাথে শরিয়তপুর জেলার শখিপুর উপজেলার মাতাভাগা গ্রামের আক্তার চকিদার এর মেয়ে শিরিনা আক্তার (২০) এর ৮ মাস পূর্বে পারিবারিকভাবে বিবাহ হয়। বিবাহের পর হতে যৌতুকের জন্য শিরিনকে নির্যাতন করে আসছিলো নুর আলম।

বুধবার রাতে স্বামী স্ত্রী একই ঘরে শয়ন করলেও শিরিনের শাশুরী পুত্র বধূ ঘুম থেকে না উঠায় তাকে ডাকতে গিয়ে লেপের নিচে তার মৃত দেহ দেখতে পায়। ঘটনার পর হতে ঘাতক স্বামী পালাতক রয়েছে। ধারনা করা হচ্ছে তাকে বালিশ চাপা দিয়ে শাসরুদ্ধ করে হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনায় নিহতের নানা আঃ আজিজ মৃধা বাদী হয়ে টঙ্গীবাড়ী থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছে। টঙ্গীবাড়ী থানা ওসি এসএ খালেক জানান, লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। ময়নতদন্তের রির্পোট আসলে রির্পোট অনুযায়ী ব্যাবস্থা নেওয়া হবে।

===================

মুন্সীগঞ্জে হাসপাতালে গৃহবধূর লাশ রেখে স্বামীর পলায়ন

আত্মহত্যার পথ বেছে নেওয়া গৃহবধূর লাশ হাসপাতালে ফেলে রেখে পালিয়ে গেছে তার স্বামী। বৃহস্পতিবার সকাল ১০টার দিকে মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে এ ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, গৃহবধূ শিরিন আক্তার (২০) টঙ্গিবাড়ী উপজেলার দিঘিরপাড় ইউনিয়নের সরিষাবন গ্রামের মৃত ফজল মিয়ার ছেলে নুর আলমের স্ত্রী। তার বাড়ি শরিয়তপুর জেলার নড়িয়া থানার নওপাড়া গ্রামে।

পারিবারিক কলহের জের ধরে বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৭টার দিকে শিরিন আক্তার গলায় ওড়না পেচিঁয়ে আত্মহত্যা করে। এতে স্বামী নুর আলম ও প্রতিবেশীরা তাকে মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।


হাসপাতালের জরুরি বিভাগে কর্মরত মিনহাজ মিয়া বাংলানিউজকে জানান, মৃত ঘোষণার পর শিরিন আক্তারের লাশ হাসপাতালে ফেলে রেখেই তার স্বামী পালিয়ে যায়।

তবে স্বপন মিয়াসহ কয়েকজন প্রতিবেশী হাসপাতালে অবস্থান করছেন বলে তিনি জানান।

এ বিষয়ে সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবুল বাসার জানান, হাসপাতাল থেকে পুলিশের আবাসিক অফিসার ঘটনাটি জানানোর পর খোঁজ-খবর নিতে সেখানে পুলিশের একটি দল পাঠানো হয়েছে।

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
================