শ্রীনগরে এনার্জি ড্রিংক্সের নামে বিক্রি হচ্ছে যৌন উত্তেজক পানীয়

energy2আরিফ হোসেন: শ্রীনগরে এনার্জি ড্রিংক্সের নামে বিভিন্ন ব্র্যান্ডের যৌন উত্তেজক পানীয় দেদারছে বিক্রি হচ্ছে। উপজেলা শহর থেকে প্রত্যন্ত গ্রামাঞ্চলের বিভিন্ন দোকানপাটে অবাধে বিক্রি হচ্ছে এসব পানীয়। বিএসটিআই সিলবিহীন ফলের জুসের মোড়ক ব্যবহার করে হরহামেশাই বিক্রি করছে দোকানীরা। এসব পানীয়ের বোতলের গায়ে প্রাপ্ত বয়স্কদের জন্য ব্যবহার লেখা থাকলেও এক শ্রেণীর উঠতি বয়সের যুবসমাজ এর দিকে মারাত্মক ভাবে ঝুঁকে পড়ছে। ফলে চরম স্বাস্থ্য ঝুকিতে রয়েছে যুবসমাজ। এ নিয়ে স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরাও চরম উৎকন্ঠা প্রকাশ করেছেন।


সরেজমিনে উপজেলার বিভিন্ন বাজারে ঘুরে কনফেকশনারী, ফাস্টফুডের দোকান, চায়ের দোকানসহ বিভিন্ন পানীয় জুসের দোকানে একাধিক ব্রান্ডের অন্তত ৮/১০ টি কোম্পানীর এনার্জি ড্রিংক্স বিক্রি হচ্ছে। এদের মধ্যে যৌন উত্তেজক হিসেবে ক্রেতাদের কাছে বিশেষভাবে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে জাহান গ্র“পের মাশরুম সিরাপ নামে ৫ টি পণ্য। ওয়ান স্টার ফুড এন্ড বেভারেজ কোম্পানীর রেড হর্স হার্বাল, সহিদ এ এম হারবাল প্রডাক্টটের হর্স ফিলিংস। এছাড়াও হর্স পাওয়ার, রুচিতা, চড়ই, দোয়েল, সিংহ, এনার্জি পাওয়ার, এক্সটা ডাবল হর্স নামে একই ধরনের পানীয় বাজারে বিক্রি হচ্ছে। এসব পানীয়ের বোতলের গায়ে “ইহা কোন ঔষধ নয় সম্পূরক খাদ্যমাত্র, শুধু মাত্র প্রাপ্তবয়স্কদের জন্য এবং বিএসটিআই’র পরীক্ষিত ” সুন্দর করে লেখা থাকলেও বিএসটিআই’র অনুমোদনের সীল নেই । অথচ বোতলের লেবেলে যে সকল পুষ্টিগুনের কথা উলেখ করা আছে তাতে করে যে কোন লোকেরই এগুলো খাওয়ার ইচ্ছা জাগবে। লেবেলে উৎপাদনের উপাদান উলেখ করে লেখা আছে ভিটামিন সি, ই, বি৬, বি৩, ক্যাফেইন, ল্যাটকন ইনোসিটল, সাইট্রিক এসিড, সোডিয়াম সাইট্রেট, সোডিয়াম বেনজোয়েট, রেড মাশরুম, স্ট্রেবেরী, রাজবেরী, কাজুবাদাম, পেস্তাবাদাম, আমলকি, খেজুর, মধু, চিনি, লিকুইট গুকোজ, ফলের নির্যাসসহ অনুমোদিত ফুড কালার। বিডিএস ১৫৮১ অনুযায়ী বিএসটিআই কর্তৃক পরীক্ষিত এসব ফ্রুটস ড্রিংক্স পান করে যুবসমাজ থেকে শুরু করে বয়স্করাও শরীরের নানান সমস্যা সহ যৌন সমস্যা নিয়ে ডাক্তারের কাছে আসছেন।
energy2
রাজধানী ঢাকার বিভিন্ন এলাকা থেকে এগুলো সরবরাহ করা হয় বলে কয়েকজন বিক্রেতা জানান। একটি সূত্র জানায়, বড় ধরণের একটি জারে খাবার পানি ভরে সেখানে একটি চকোলেট পরিমান সাদা রং য়ের যৌন উত্তেজক পদার্থ মিশ্রণ করা হয় । কিছুক্ষণ পরই এই পানিটি ঘন আঠালো পদার্থে পরিণত হয়। তাতে আরো কিছু কেমিক্যাল ও ফ্লেভার মিশিয়ে এ এনার্জি জুস তৈরী করা হয় ।


স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ সহ নির্ভরযোগ্য একাধিক সুত্র থেকে জানা গেছে, এসব পানীয় জুসে অপিয়েট ও সিলডিনাফিল সাইট্রেট জাতীয় পদার্থ ব্যবহার করা হয় । যা মানবদেহের জন্য অত্যন্ত ক্ষতিকারক ।তবে এগুলো নেশা সৃষ্টি ছাড়াও সাময়িকভাবে যৌন উত্তেজনা বৃদ্ধি করলেও দেহে মারাতœক ক্ষতিকর প্রভাব ফেলে ।
energy1
এব্যাপারে শ্রীনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপেক্সের চর্ম ও যৌন রোগের বিশেষজ্ঞ ডাঃ মোঃ কামাল উদ্দিন বলেন, সিলডিনাফিল সাইট্রেট জাতীয় পদার্থ শরীরের তাৎক্ষণিক যৌন উত্তেজনা বৃদ্ধি করে থাকে । কিন্তু যারা এসব অধিক মাত্রায় গ্রহণ করেন তারা কিছুদিন পরে চিরতরে যৌন ক্ষমতা হারিয়ে ফেলেন।