মুন্সীগঞ্জের গজারিয়ায় তথ্যমন্ত্রী

নাদিম মাহমুদ: মুন্সীগঞ্জের গজারিয়ার বালুকান্দিস্থ মেঘনা ভিলেজ পার্কে গতকাল শনিবার দুপুরে বাংলাদেশ মানব কল্যাণ সোসাইটির উদ্যোগে ‘খাদ্যদ্রব্য ভেজাল প্রতিরোধ ও জনসচেতনতা সৃষ্টি মিডিয়ার ভূমিকা’ শীর্ষক এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু।

সোসাইটির সহসভাপতি অ্যাডভোকেট এসকে সিকদারের সভাপতিত্বে এ আলোচনা সভায় প্রধান আলোচক ছিলেন ভেজালবিরোধী আন্দোলনের কর্ণধার রুকনউদ্দৌলা। এছাড়া আরও উপস্থিত ছিলেন সড়ক ও জনপথের সাবেক প্রধান প্রকৌশলী আব্দুল কুদ্দুস, মনির চৌধুরী, চলচ্চিত্র নায়িকা শাহনুর, মিতানূর প্রমুখ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে তথ্যমন্ত্রী বলেন, একটি দেশে বীর, সন্যাসীসহ অনেক কিছু থাকলেও দেশপ্রেমিক থাকতে হয়। দেশপ্রেমিক না থাকলে দেশ রসাতলে যায়। আমাদের বাংলাদেশে দেশপ্রেমিক হয়েছিলাম দেখেই মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করে দেশটাকে স্বাধীন করেছিলাম। আর স্বাধীনতার ৪২ বছরে দেশপ্রেমিকতার ঘাটতি আছে বলে দেশটা একুট হোঁচট খেতে খেতে এগুচ্ছে।


তথ্যমন্ত্রী বলেন, আজকে যে বাংলাদেশকে দেখছেন তা আরও সমৃদ্ধ ও সুন্দর হতে পারতো। যদি দুর্নীতিকে দমন প্রতিরোধ করতে পারতাম, সাম্প্রদায়িকতাকে নির্বাসিত করতে পারতাম, দলবাজিকে উচ্ছেদ করতে পারতামÑ তাহলেই দেশ ও সমাজ আরও সুন্দর হয়ে উঠতো।

এমনকি রোকনউদ্দৌলার ভেজালবিরোধী আন্দোলনকে প্রতিষ্ঠা করা যেতো, তাহলে সুস্থ একটি জাতি উপহার দিতে পারতাম। এ সময় তথ্যমন্ত্রী ফরমালিনসহ বিভিন্ন কায়দায় খাদ্যদ্রব্যে ভেজাল সম্পর্কে আলোচনা করেন এবং আইনের সঠিক প্রয়োগ করতে হবে বলে মতামত ব্যক্ত করেন। প্রয়োজনে নতুন আইন প্রণয়নের কথাও তুলে ধরেন তথ্যমন্ত্রী।

আমাদের সময়