ঘনকুয়াশার কারণে মাওয়া-কাওড়াকান্দি নৌরুটে সাড়ে চার ঘন্টা ফেরি চলাচল বন্ধ

পদ্মা নদীর মাঝে যাত্রী ও পরিবহন নিয়ে ৭ টি ফেরি আটকা
ঘনকুয়াশার কারণে গতকাল শুক্রবার মুন্সিগঞ্জের লৌহজং উপজেলার মাওয়া-কাওড়াকান্দি নৌরুটে সাড়ে ৪ ঘন্টা ফেরি চলাচল বন্ধ ছিল। এ সময় পদ্মা নদীর মাঝে যাত্রী ও পরিবহনসহ ৭ টি ফেরি আটকা পড়ে। তীব্র শীতে নদীর মাঝে দীর্ঘ সময় আটকে থেকে যাত্রীরা। এত যাত্রীরা চরম দুর্ভোগের শিকার হন । এ কারণে মাওয়া ফেরীঘাটে দেখা দেয় যানজটের দীর্ঘ লাইন।

বিআইডব্লিউটিসি মাওয়া অফিসের মেরিন অফিসার আব্দুল সোবহান জানান, শুক্রবার ভোর রাত ৪ টা থেকে সকাল সাড়ে ৮ টা পর্যন্ত ঘন কুয়াশার কারণে মাওয়া-কাওড়াকান্দি নৌরুটে সকল প্রকার ফেরি চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। পদ্মা অববাহিকায় ঘন কুয়াশার চাদর বিস্তার করায় ফেরি চালকরা দিক নির্ণয় করতে পারছিলো না। এর ফলে মাওয়া ও কাওড়াকান্দি ঘাট থেকে ছেড়ে যাওয়া ৭ টি ফেরি মাঝ পদ্মায় নোঙর করতে বাধ্য হয়। রো রো ফেরি ভাষা শহীদ বরকত, শাহ মখদুম, ফেরি রানীক্ষেত, রামশ্রী, যমুনা, কিশোরী ও কাকলী নামের এই ৭টি ফেরিতে এ সময় শতাধিক বিভিন্ন প্রকার যানবাহন ও সহস্রাধিক যাত্রী ছিল। তীব্র শীতের মধ্যে দীর্ঘ সময় মাঝ পদ্মায় ফেরিগুলো আটকে থাকে। এতে পদ্মার মাঝে যাত্রীরা শীতে চরম দুর্ভোগ পোহান। এ সময় মাওয়া ঘাটে ফেরি প্রবাল, যশোর, ফরিদপুর ও ঢাকা এবং কাওড়াকান্দি ঘাটে থেমে থাকা ফেরিগুলো কুয়াশার কারণে এঘাট থেকে ছেড়ে যেতে পারেনি। তাছাড়া ফেরি বন্ধের কারণে মাওয়া ঘাটেও দেখা দেয় দীর্ঘ যানজট। সকাল সাড়ে আটটার দিকে কুয়াশা কেটে গেলে ফেরিগুলো আবার চলাচল শুরু করে। এতে মাওয়া পাড়ের যানজট প্রশমিত হয়।

[ad#bottom]