মিরকাদিম মন্দিরে আবারো চুরি

মুন্সীগঞ্জ সদর উপজেলার মিরকাদিম উত্তর মুরমা শ্যামসুন্দর আখড়া মন্দিরে শুক্রবার রাতে চুরি হয়েছে। বুধবার রাতে পার্শ্ববর্তী টঙ্গীবাড়ি উপজেলার আব্দুল্লাপুরে লোকনাথ ও শশ্মান মন্দিরে আরেকটি চুরির ঘটনা ঘটে। শুক্রবার গভীর রাতে শ্যামসুন্দর আখড়া মন্দিরটির ৩টি তালা ভেঙে এই চুরির ঘটনা ঘটেছে বলে জানিয়েছেন মন্দির কমিটির সভাপতি মদন গোপাল পাল।

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে তিনি বলেন, “চোরেরা মন্দির থেকে প্রায় দেড়শ’ বছরের পুরনো স্বর্ণ ও রূপাসহ আটটি অষ্টধাতুর মূল্যবান মূর্তি, দান বাক্সে থাকা প্রায় ৪০ হাজার টাকা এবং ছয় ভরি ওজনের রূপার গহনা নিয়ে গেছে।”

টঙ্গীবাড়ীর লোকনাথ ও শশ্মান মন্দিরে যে দলটি চুরি করেছিলো তারাই এ ঘটনা ঘটিয়ে থাকতে পারে বলে সন্দেহ করছেন তিনি।

সদর থানার ওসি মো. শহিদুল ইসলাম বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান, এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রক্রিয়া চলছে। চোর চক্রটির সদস্যদের ধরতে এবং চুরি যাওয়া মূর্তিগুলো উদ্ধারের চেষ্টা চলছে।

বিডি নিউজ 24
——————————————————–

মুন্সীগঞ্জে এবার মন্দিরের ৮টি মূর্তি চুরি

জেলায় আবারও মূর্তি চুরির ঘটনা ঘটেছে। দু’দিনের ব্যবধানে একটি মন্দির থেকে এবার ৮টি মূর্তি নিয়ে গেছে চোরেরা।

শুক্রবার গভীর রাতে সদর উপজেলার মিরকাদিম উত্তর মুরমা শ্যামসুন্দর আখরা মন্দিরে এ চুরি সংঘটিত হয়।

চোরের দল অষ্টধাতুর ৮টি মূর্তি, মন্দিরের দান বাক্সে থাকা প্রায় ৪০ হাজার টাকা এবং ৬ ভরি ওজনের রুপার গয়না নিয়ে যায়।

মিরকাদিম পৌরসভার মেয়র ঘটনাস্থল থেকে বাংলানিউজকে জানান, জনবহুল এলাকায় অবস্থিত এসব মন্দিরের পাকা ভবনে চুরির ঘটনা সনাতন ধর্মাবলম্বী মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি করেছে।

তিনি বলেন, ‘প্রায় দেড় শ’ বছরের পুরনো মন্দিরে স্বর্ণ ও রূপাসহ অষ্টধাতু দিয়ে তৈরি প্রাচীন মূর্তিগুলো চুরি যাওয়ায় অনেকে কান্নায় ভেঙে পড়েন।’

মন্দির কমিটির সভাপতি মদন গোপাল পাল বাংলানিউজকে বলেন, ‘দেবতাদের প্রাচীন প্রতিমাগুলো চুরি করে নিয়ে যাওয়ায় কতোটা কষ্ট পেয়েছি তা বোঝাতে পারবো না।’

তিনি বাদী হয়ে দুপুরে সদর থানায় এ ব্যাপারে মামলা করেছেন।

উল্লেখ্য, মাত্র দু’দিন আগে পার্শ্ববর্তী টঙ্গীবাড়ীর আব্দুল্লাপুরে বুধবার গভীর রাতে লোকনাথ মন্দির ও শশ্মান মন্দিরে একই ধরনের চুরির ঘটনা ঘটে। চোরেরা লোকনাথ মূর্তির স্বর্ণের চোখসহ মূল্যবান সামগ্রী এবং দানবাক্স ভেঙে সব টাকা নিয়ে যায়।

পৌর মেয়র বলেন, ‘একই গ্রুপ হয়তো এই চুরির ঘটনাটি ঘটিয়েছে।’

মুন্সীগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো.শহিদুল ইসলাম জানান, ‘চোরের চক্রটি ধরতে এবং চুরি যাওয়া মূর্তিগুলো অত অবস্থায় উদ্ধারে চেষ্টা চলছে।’

ফারহানা মির্জা, জেলা প্রতিনিধি
বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

[ad#bottom]