আগামী বছরের শুরুতেই খোকাকে অপসারণ

আগামী বছরের জানুয়ারিতে ঢাকা সিটি করপোরেশন (ডিসিসি) মেয়র সাদেক হোসেন খোকাকে অপশারণ করে প্রশাসক নিয়োগ দেয়ার চিন্তা করছে সরকার। ডিসিসি মেয়রকে অব্যাহতি দিয়ে তার স্থলে প্রশাসক নিয়োগের জন্য আইন সংশোধন করতে মন্ত্রণালয়কে সুপারিশ করেছে সংসদীয় স্থায়ী কমিটি। আইন সংশোধনের কাজও শুরু হয়েছে, যা আগামী সংসদ অধিবেশনে উত্থাপন করা হবে। খবর সংশ্লিষ্ট সূত্রের। ডিসিসি নির্বচন শিগগিরই যে হচ্ছে না তার ইঙ্গিত দিয়েছেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি এডভোকেট রহমত আলী।

তিনি বলেন, বিভিন্ন কারণে সরকার এখনই ডিসিসি নির্বাচনের পক্ষে নয়। তিনি বলেন, মেয়াদউত্তীর্ণ কোনো জনপ্রতিনিধি যাতে ক্ষমতায় না থাকতে পারে সেজন্যই এ বিষয়ে আইন সংশোধন করতে বলা হয়েছে মন্ত্রণালয়কে। শুধু ডিসিসি নয়, সব সিটি কর্পোরেশনেই প্রশাসক নিয়োগের বিধান রাখার কথা বলেছে সংসদীয় সংদীয় কমিটি। স্থায়ী কমিটির সুপারিশ অনুসারে ডিসিসিসহ মেয়াদোত্তীর্ণ সিটি করপোরেশনগুলোতে প্রশাসক নিয়োগের বিধিমালা তৈরি করার কাজ শুরু করেছে সরকার। সিটি করপোরেশনের মেয়রের মেয়াদ ৫ বছর পূর্ণ হলে এবং নির্ধারিত সময়ে নির্বাচন অনুষ্ঠিত না হলেও নির্বাচিত মেয়র আর ক্ষমতায় থাকতে পারবেন না। তাকে মেয়রের পদ থেকে অব্যাহতি দিয়ে সরকার তারস্থলে এক প্রশাসক নিয়োগ করে সিটি কর্পোরেশনের কার্যক্রম পরিচালনা করবে। একজন প্রশাসক ১৮০ দিনের জন্য নিয়োগ লাভ করবেন। ওই সময়ের মধ্যে নির্বাচন না হলে পরবর্তী নির্বাচন পর্যন্ত তিনি প্রশাসক হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন। এমন বিধান রেখে আগামী সংসদ অদিবেশনে সিটি কর্পোরেশন আইন ২০১০ সংশোধনের প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে।

দেশের ৬টি সিটি কর্পোরেশনের মধ্যে শুধু ডিসিসি মেয়রই বর্তমানে মেয়াদ উত্তীর্ণ ক্ষমতা ভোগ করছেন। ২০০৭ সালের মে মাসেই ডিসিসি মেয়র খোকার ক্ষমতার মেয়াদ শেষ হয়ে গেছে। তবু তিনি এখনো মেয়রের দায়িত্ব পালন করছেন। এর ওপরে তাকে নিয়ে আগে থেকেই বিপাকে আছে সংসদীয় স্থায়ী কমিটি। সরকারের একটি নির্ভরশীল সূত্র জানায় নানা কারণে ডিসিসি নির্বাচন অনিশ্চিত হয়ে পড়ায় বর্তমান মেয়াদোত্তীর্ণ মেয়র সাদেক হোসেন খোকা ক্ষমতার অপব্যবহার করছেন। ভবিষ্যতে কোনো মেয়র যাতে ক্ষমতার অপব্যবহার করতে না পারে সেজন্য স্থানীয় সরকার (সিটি করপোরেশন) আইন সংশোধন করা হচ্ছে। আইন সংশোধন হলেই সাদেক হোসেন খোকাকে মেয়রের দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেয়া হবে।

দিনের শেষে

[ad#bottom]