মাওয়ায় ফেরি চলাচল ব্যাহত

নাব্যতা সংকটের কারণে নদীতে ফেরি আটকা পড়ায় মাওয়া-কাওড়াকান্দি রুটে মঙ্গলবার ফেরি পারাপার প্রায় পৌণে ৪ঘণ্টা বন্ধ ছিলো। সেটি উদ্ধার করার পর ফেরি চলাচল আবার শুরু হয়। মাওয়ায় বিআইডব্লিউটিসির ব্যবস্থাপক সিরাজুল হক জানান, রাণীক্ষেত নামের রো রো ফেরি মঙ্গলবার ভোর ৪টার দিকে কাউলিয়ার চরে আটকা পড়ে। এ কারণে দুই ঘাট থেকে ফেরি চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয়। সকাল পৌনে ৮টার দিকে রাণীক্ষেত উদ্ধার হওয়ার পর ফেরি চলাচল আবার শুরু হয়।

এর আগে সোমবার রাত ১০টার দিকে রো রো ফেরি ভাষা শহীদ বরকত কাউলিয়ার চরে আটকা পড়ে। রাত সোয়া ২টার দিকে ফেরিটিকে উদ্ধার করা হয়।

সিরাজুল হক জানান, দুই দফায় ফেরি চলাচলে বিঘ্ন ঘটায় দুই ঘাটে কয়েক’শ যানবাহন আটকা পড়ে।

তিনি জানান, নদীতে ভাসমান থাকার পর টাপলো, রামসীড়ি ও কাকলী ফেরি সকাল ৮টার পর গন্তব্যে রওনা হয়। পরে দুই ঘাট থেকেই ফেরি চলাচল শুরু হয়েছে।

বিডি নিউজ 24
————————————————————

মাওয়ায় ফেরি চলাচল বিঘ্নিত ॥ যানজট
নাব্য সংকট
নাব্য সংকটে মাওয়ায় ফেরি চলাচল মারত্মকভাবে বিঘ্নিত হচ্ছে। ভোর ৪টা থেকে সকাল পৌনে ৮ টা পর্যন্ত মাওয়া-কাওড়াকান্দি রুটে ফেরি চলাচল সম্পূর্ণরূপে বন্ধ হয়ে যায়। এর আগে সোমবার রাত ১০ টায় রো রো ফেরী ভাষা শহীদ বরকত কাউলিয়ার চরে আটকা পড়ে রাত সোয়া ২টায় উদ্ধর হয়।

পরেবর্তীতে রানীক্ষেত একইস্থানে আটকা পড়ে ভোর চার টায়। উভয়পাশে আরও ৪টি ফেরি আটকে যায়। এরপর মাওয়া ঘাট থেকে কোন ফেরি ছেড়ে যায়নি। পরে অনেক চেষ্টায় সকাল পৌনে ৮ টায় রানীক্ষেত ফেরিটি উদ্ধার হলে ফেরি চলাচল আবার শুরু হয়।

মাওয়াস্থ বিআইডব্লিউটিসির ম্যানেজার সিরাজুল হক জানান, ৩টি ড্রেজার দিয়ে বালু কাটা হচ্ছে। কিন্তু নাব্য সঙ্কটের কারণে এখনও ফেরী চলাচল হুমকির মুখে। এদিকে প্রায় পৌনে ১০ঘন্টা ফেরি চলাচল বন্ধ থাকায় যাত্রীবাহী বাস, প্রাইভেটকার, ট্রাকসহ আটকা পড়েছে কয়েক’শ যান। সৃষ্টি হয়েছে প্রায় ৪ কিলোমিটারের দীর্ঘ যানযট।

ফেরি চলাচলের জন্য পানির গভীরতা দরকার কমপক্ষে ৮ ফুট। কিন্তু এখানে পানির গভীরতা ৬ ফুটের বেশী নয় বলে ম্যানেজার সিরাজুল হক জানান। পানির গভীরতা বৃদ্ধির জন্যন এই নৌরুটের বিভিন্ন স্থানে প্রায় এক মাসের বেশী সময় ধরে ড্রেজিং করার পরও কোন লাভ হয়নি। এদিকে বেলা বাড়ার সাথেসাথে বেড়ে যাচ্ছে যানযট। ফেরি চলাচল শুরু হলেও এখনও যানজট তীব্র আকার ধারণ করেছে।

বিক্রমপুর সংবাদ
———————————–

[ad#co-1]