মুকুন্দ দাস আজ একটি অনন্য উদাহরণ

বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমীর স্টুডিও থিয়েটারে আজ সন্ধ্যা সাতটায় মঞ্চস্থ হবে প্রাঙ্গণে মোর নাট্যদলের নাটক লোকনায়ক। চারণসম্রাট মুকুন্দ দাসের জীবন নিয়ে নাটকটি লিখেছেন ও নির্দেশনা দিয়েছেন অনন্ত হীরা। নাটকটিতে তিনি অভিনয়ও করেছেন। কথা হলো তাঁর সঙ্গে।

‘লোকনায়ক’ নাটকটির আজ কততম প্রদর্শনী হচ্ছে?
২৯তম। ২০০৮ সালে আমরা নাটকটি মঞ্চে এনেছি। একেবারে অন্য ধরনের গল্প। ব্রিটিশবিরোধী আন্দোলনে চারণসম্রাট মুকুন্দ দাসের যথেষ্ট ভূমিকা ছিল। তাঁর সেই অবদান, আজ আমাদের কাছে একটি অনন্য উদাহরণ। এখন অর্থ, খ্যাতি আর প্রতিপত্তির বলয়ে আবদ্ধ শিল্পীসমাজ ব্যক্তিকেন্দ্রিক হয়ে পড়েছে। সমাজ ও দেশের প্রতি দায়বদ্ধতার জায়গাটা নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। লোকনায়ক নাটকটির মধ্য দিয়ে আমরা এটাই বলতে চেয়েছি।

ঢাকার বাইরে আর কোথায় নাটকটির প্রদর্শনী হয়েছে?

দেশের মধ্যে সিলেট ও চট্টগ্রামে। দেশের বাইরে হয়েছে—ভারতের পশ্চিমবঙ্গের শিলিগুড়ি, কলকাতা, বহরমপুর আর রঘুনাথগঞ্জে।

‘লোকনায়ক’ নাটকটির ব্যাপারে আমাদের নাট্যজনদের কাছ থেকে কেমন প্রতিক্রিয়া পেয়েছেন?
এই নাটকের সপ্তম প্রদর্শনীটি দেখতে এসেছিলেন মামুনুর রশীদ। নাটক শেষ হওয়ার পর তিনি আমাকে জড়িয়ে ধরলেন। বললেন, এ সময় এমন একটি নাটকের বড় প্রয়োজন ছিল। তাঁর এই শুভেচ্ছা আমাদের জন্য অনেক বড় পাওয়া। এ ছাড়া অন্যরাও প্রশংসা করেছেন।

মঞ্চের জন্য নতুন কোনো নাটকের কথা ভেবেছেন?
সম্প্রতি আমরা মঞ্চে এনেছি কাজী নজরুল ইসলামের কবিতা অবলম্বনে নাটক দ্রোহ প্রেম ও নারী। এরই মধ্যে নাটকটির পাঁচটি প্রদর্শনী হয়েছে। রবীন্দ্রনাথের রক্তকরবীরও প্রদর্শনী হচ্ছে। ৫ নভেম্বর বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমীর পরীক্ষণ থিয়েটার হলে নাটকটির প্রদর্শনী হবে।

বৈশাখী টিভিতে আজ ‘সম্পর্ক’ নাটকটি দেখানো হবে।
ধারাবাহিকটি আমি লিখেছি, পরিচালনা ও অভিনয়ও করেছি। আমাদের বোধ এবং বিশ্বাসের জায়গা থেকে সম্পর্কগুলো কেমন হওয়া উচিত, কেন তা ভেঙে যাচ্ছে—গল্পে এই দিকটিতে গুরুত্ব দিয়েছি। পাশাপাশি মুক্তিযুদ্ধের চেতনার বিষয়টিও আছে।

চ্যানেল ওয়ানে আপনার ‘গহর বাইদ্যা’ ধারাবাহিকটি প্রচারিত হচ্ছিল। চ্যানেল ওয়ান তো বন্ধ হয়ে গেছে। ওই ধারাবাহিকটির কী খবর?
গহর বাইদ্যার কয়েকটি পর্ব চ্যানেল ওয়ানে প্রচারিত হয়েছিল। এরপর থেকে বাকি পর্বগুলো মাই টিভিতে জমা দিয়েছি। এখন এই চ্যানেলেই নাটকটি দেখানো হবে।

[ad#co-1]