স্কুল ছাত্রকে পিটিয়ে জখম করায় শিক্ষক আটক

মুন্সিগঞ্জে তুচ্ছঘটনাকে কেন্দ্র করে স্কুল শিক্ষক মো. কাইয়ুম সোমবার ৭ম শ্রেণীর এক ছাত্রকে পিটিয়ে গুরুতর জখম করেছে। এ ঘটনায় পুলিশ শারীরিক শিক্ষার ওই শিক্ষককে আটক করেছে। পুলিশ সূত্রে জানা যায়, মুন্সিগঞ্জ ইদ্রাকপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের ৭ম শ্রেণীর ছাত্র রাব্বি হাসান (১২) শ্রেণীকক্ষে তার ব্যাগের একটি চেইন হারিয়ে ফেলে। পরে সে স্কুলের শারীরিক শিক্ষক মো. কাউয়ুমের কাছে এ ব্যপারে অভিযোগ করে। এতে ওই শিক্ষক উল্টো রাব্বিকে চর থাপ্পর দেয়। তারপর আবার বেত দিয়ে বেদম প্রহার করে। এতে রক্তাক্ত জখম হয় রাব্বি। গুরুতর জখম অবস্থায় রাব্বিকে উদ্ধার করে মুন্সিগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ঘটনার খবর পেয়ে মুন্সিগঞ্জ সদর থানা পুলিশ শিক্ষক কাইয়ুমকে আটক করে নিয়ে আসে।

এ ব্যাপারে সদর থানার ওসি শহীদুল ইসলাম রাতে শীর্ষ নিউজ ডটকমকে জানান, তুচ্ছঘটনার জন্য ছাত্রটিকে ওই শিক্ষক যেভাবে মেরেছে তা অত্যন্ত অমানবিক। উচ্চ আদালতের নির্দেশ আছে ক্লাসে বেত ব্যবহার করা যাবে না। সেখানে সে মারাত্মকভাবে পিটিয়েছে। তাই ওই শিক্ষককে আটক করা হয়েছে।

রাত ১০টায় এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত ওই শিক্ষক থানা আটক ছিল।

[ad#co-1]