যাত্রাবাড়ী ট্রিপল মার্ডার: আসামি হীরা মুন্সীগঞ্জে গ্রেপ্তার

রাজধানীর যাত্রাবাড়ীতে একই পরিবারের তিনজনকে হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত বলে অভিযুক্ত আসামি মোহাম্মদ হীরা মিয়াকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। সোমবার ভোর ৪টায় গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) সহকারী পুলিশ কমিশনার মোহাম্মদ গোলাম আজাদ খানের নেতৃত্বে ডিবি পুলিশের একটি দল মুন্সীগঞ্জর সদর থানার রামপাল এলাকা থেকে হীরাকে গ্রেপ্তার করে।

সোমবার দুপুর ১২টায় ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত এক সাংবাদিক সম্মেলনে এ তথ্য জানান ডিবি’র উপ-কমিশনার (ডিসি) মোহাম্মদ মনিরুল ইসলাম।

তিনি জানান, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেপ্তারকৃত হীরা হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে।

মনিরুল ইসলাম জানান, হীরাকে গ্রেপ্তার করার মধ্য দিয়ে যাত্রাবাড়ীতে একই পরিবারের তিন সদস্য হত্যা মামলার সব আসামিকে গ্রেপ্তার করা সম্ভব হলো। এর আগে মামলার অপর দুই আসামিকে গ্রেপ্তার করা হয়।

হত্যাকাণ্ডের মূল কারণ উদঘাটিত হলেও গ্রেপ্তারকৃত হীরাসহ তিন আসামিকে মুখোমুখি করলে আরও কিছু অজানা বিষয় জানা যাবে বলে জানান ডিবি ডিসি।

তিনি জানান, এর আগে গ্রেপ্তারকৃত দুজন রিমান্ডে রয়েছে। হীরাকে রিমান্ডে নিলে বাকি তথ্য জানা যাবে।

হত্যাকারীদের গ্রেপ্তার ছাড়াও এ হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত ছোড়া, লুণ্ঠিত আগ্নেয়াস্ত্র ও স্বর্ণালঙ্কারও উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানান মোহাম্মদ মনিরুল ইসলাম।

হীরার গ্রামের বাড়ি মুন্সীগঞ্জে হলেও সে উত্তর যাত্রবাড়ীর ১৫৩ শহীদ ফারুক সড়কের টনি টাওয়ার গলিতে শ্বশুর বাড়িতে থাকতো। তার পিতার নাম মৃত হাসান আলী।

উল্লেখ্য, গত ৩০ সেপ্টেম্বর রাজধানীর যাত্রাবাড়ী থানার শহীদ ফারুক রোডের একটি বাড়িতে মিজানুর রহমান মিল্টন, তার স্ত্রী বীথি রহমান (৪৫) ও বৃদ্ধ মা সুফিয়া খাতুনকে জবাই ও গুলি করে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা।

হত্যার পর দুর্বৃত্তরা মিজানুর রহমানের লাইসেন্সকৃত রিভলবার ও স্বর্ণালঙ্কার নিয়ে পালিয়ে যায়।

এ ঘটনায় নিহত মিল্টনের একমাত্র ছেলে আশিকুর রহমান যাত্রাবড়ী থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন।

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম.বিডি
বাংলাদেশ সময়: ১৩০৯ ঘণ্টা, অক্টোবর ২৫, ২০১০

[ad#co-1]