সিরাজদিখানে বাইক আরোহী হত

মঙ্গলবার বেলা আড়াইটার দিকে সিরাজদিখান উপজেলার রশুনিয়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় রনি (১৬) নামের এক যুবক নিহত হয়েছে। সিরাজদিখান থানার ওসি মাহবুব আলম জানান, ঢাকা থেকে মোটরবাইক চালিয়ে টঙ্গীবাড়ি উপজেলার নেয়াদ্দা গ্রামের বাড়ি আসার পথে এই দুর্ঘটনা ঘটে। নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার পাশের একটি গাছের সাথে প্রচন্ড বেগে ধাক্কায় গুরুতর আহত হয়। স্থানীয় লোকজন তাৎক্ষনিক তাকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পর চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করে। রনি নোয়াদ্দা গ্রামের জাহাঙ্গীর আলমের পুত্র। দুমড়ে মুচরে যাওয়া বাইকটি পুলিশ হেফাজতে রয়েছে। রনির মাথায় হেলমেট না থাকা এবং দ্রুত গতিতে বাইক চালানোর কারণেই এই দুর্ঘটনা ঘটে পুলিশ জানায়।

বিক্রমপুর সংবাদ
————————————————————————

সিরাজদিখানে সড়ক দুর্ঘটনায় ঢাকা কলেজের ছাত্রের মৃত্যু

মুন্সিগঞ্জের সিরাজদিখান উপজেলায় আজ মঙ্গলবার সকালে সড়ক দুর্ঘটনায় ঢাকা কলেজের উচ্চমাধ্যমিক প্রথম বর্ষের ছাত্র রানা শেখের মৃত্যু হয়েছে। মাছবাহী ট্রাকের সঙ্গে মোটরসাইকেলের সংঘর্ষে এ দুর্ঘটনা ঘটে। প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ জানায়, রানা শেখ আজ সকাল সাড়ে আটটার দিকে ঢাকা থেকে মোটরসাইকেলে মুন্সিগঞ্জে যাচ্ছিলেন। পথে সিরাজদিখান রৌশোনিয়া টানা ব্রিজের কাছে ঢাকাগামী ট্রাকের সঙ্গে তাঁর মোটরসাইকেলটির মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে রানা ছিটকে রাস্তার ওপর পড়ে যান। তাঁর পকেটে থাকা কাগজ থেকে একটি মোবাইল ফোন নম্বর নিয়ে স্থানীয়রা ফোন করলে রানার চাচাতো ভাই আলমগীর হোসেন ঘটনাস্থলে যান।

আলমগীর হোসেন জানান, রানা তাঁর মা-বাবার সঙ্গে ওয়ারীতে থাকতেন। তাঁর বাবার নাম মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর হোসেন। চার দিন আগে নতুন মোটরসাইকেল কিনেছেন। সেই মোটরসাইকেলে করে তিনি গ্রামের বাড়ি মুন্সিগঞ্জের টঙ্গীবাড়ীতে যাচ্ছিলেন। বেলা সাড়ে ১১টার দিকে রানাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে এলে কর্তব্যরত চিকিত্সক তাঁকে মৃত ঘোষণা করে।

নিউমার্কেট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোস্তাফিজুর রহমান জানান, রানার মৃত্যুর খবর পৌঁছলে ঢাকা কলেজে শোকের ছায়া নেমে আসে।

প্রথম আলো

[ad#co-1]