মুন্সীগঞ্জে শুভসংঘের বিশ্ব শিক্ষক দিবস পালিত

মতিউল ইসলাম হিরু বিশ্ব শিক্ষক দিবস উপলক্ষে গত ৫ অক্টোবর মঙ্গলবার সন্ধ্যায় মুন্সীগঞ্জ জেলা শিল্পকলা একাডেমী মহড়া কক্ষে মুন্সীগঞ্জ শুভসংঘ আয়োজন করে এক আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের। মুন্সীগঞ্জ শুভসংঘের সভাপতি মতিউল ইসলাম হিরুর সভাপতিত্বে ওই অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সরকারি হরগঙ্গা কলেজের অধ্যক্ষ প্রবীর কুমার গাঙ্গুলী। বক্তব্য রাখেন মুন্সীগঞ্জ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সাবেক সহকারী প্রধান শিক্ষক আলী নাছিম, মুক্তিযোদ্ধা মো. জামাল হোসেন, মুন্সীগঞ্জ ল কলেজের শিক্ষক অ্যাডভোকেট আক্তার হোসেন, ছাবেরা আক্তার ছবি, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সাবেক সভাপতি শাহিন মো. আমানউল্লাহ, সাধারণ সম্পাদক সাইফুল আলম খোকা, সাবেক সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন ফরিদ ও জাহাঙ্গীর আলম ঢালী এবং শিল্পকলা একাডেমীর সংগীত বিভাগের প্রশিক্ষক আক্তারুজ্জামান আবুল।

অনুষ্ঠানটির সার্বিক পরিচালনায় ছিলেন কালের কণ্ঠ মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি সোনিয়া হাবিব লাবনী। প্রধান অতিথির বক্তৃতায় অধ্যক্ষ প্রবীর কুমার গাঙ্গুলী বলেন, ‘১৯৯৪ সাল থেকে বাংলাদেশে বিশ্ব শিক্ষক দিবস পালিত হয়ে এলেও এ বছরের আগে পর্যন্ত মুন্সীগঞ্জে দিবসটি সরকারি বা বেসরকারিভাবে পালিত হয়নি।’ শুভসংঘের এ আয়োজন তাই সত্যিই প্রশংসার দাবি রাখে। তিনি আরো বলেন, আমরা যাঁদের কাছ থেকে শিক্ষা গ্রহণ করেছি, শিক্ষকতা তাঁদের কাছে শুধু পেশা নয়, নেশাও ছিল। এখন আর তা নেই। কারণ বেতন বৈষম্য, দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতিসহ বিভিন্ন কারণে তাঁরা ঠিকমতো পাঠদানে মনোনিবেশ করতে পারেন না। আলী নাছিম বলেন, মেধাবীদের শিক্ষকতা পেশায় আনতে সরকারকে উদ্যোগ নিতে হবে। দেশে প্রাথমিক থেকে শুরু করে বিশ্ববিদ্যালয় পর্যন্ত নানামুখী সমস্যার মধ্যে থেকেও শিক্ষকরা শিক্ষাসেবা দিয়ে আসছেন। বিভিন্ন সমস্যার কারণে শিক্ষকতার দিকে আগ্রহ কমে যাচ্ছে মেধাবীদের। এতে ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছে দেশ ও ভবিষ্যৎ প্রজন্মের। পরে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে সংগীত পরিবেশন করেন রফিকুল ইসলাম বাবু, মুক্তা, বানিউল আমিন বনি ও জাহিদ হাসান নিরব।

[ad#co-1]