কপাল ভালো খোকার ঝুঁকিতে নেই সরকার

পীর হাবিবুর রহমান: কপাল ভালো ঢাকার মেয়র সাদেক হোসেন খোকার। চট্টগ্রাম পরাজয়ের পর ঢাকার মেয়র নির্বাচনের ঝুঁকি নিতে রাজি নয় সরকার। তাই নির্বাচন কমিশন ঢাকা সিটি করপোরেশন নির্বাচন সম্পন্ন করার আগ্রহ নিয়ে সরকারকে কয়েক দফা চিঠি দিলেও জবাব পায়নি। সরকার ডিসিসি নির্বাচন এড়িয়ে পৌরসভা ও ইউপি নির্বাচন করার কথাই বলছে। নির্বাচন কমিশন নভেম্বরে তফসিল ঘোষণা করে ডিসেম্বরে ডিসিসি ও মেয়াদোত্তীর্ণ ২৭২টি পৌরসভা নির্বাচনের কথা ভাবলেও মামলায় আটকে যাওয়ার ভয় থেকে মুক্ত হতে পারছে না। সরকারের দায়িত্বশীল সূত্র জানায়, ওপর মহল মনে করে ঢাকার মেয়র নির্বাচনে আওয়ামী লীগ প্রার্থীর পরাজয় ঘটলে এর নেতিবাচক প্রভাব সারাদেশে পড়বে। ঢাকার আন্দোলন ও নির্বাচন জনগণের মনে জোয়ার-ভাটার সৃষ্টি করে। এতে হারলে বিএনপির অবস্থান হবে শক্তিশালী এবং তারা মধ্যবর্তী নির্বাচনের জিগির তুলতে দেরি করবে না। এছাড়া শাসক দলের হাইকমান্ড প্রথমে মেয়র প্রার্থী হিসেবে মোফাজ্জল হোসেন মায়া, রহমতউল্লাহ এবং মাহবুবুল আলম হানিফের কথা ভাবলেও নিশ্চিত সাবের চৌধুরী ছাড়া জয়ী হওয়ার মতো বিকল্প প্রার্থীই শাসক দলে নেই। বর্তমান জনমতের প্রেক্ষিতে সাবের চৌধুরী জয়ী হবেন এমনটিও নিশ্চিত নয় সরকার। তাই ভোটের ঝুঁকি এড়িয়ে চলছে সরকার।

২০০২ সালের এপ্রিলে আওয়ামী লীগের বর্জনের মুখে খোকা বিনা বাধায় ঢাকার মেয়র নির্বাচিত হন। ২০০৭ সালের ১৪ মে তার মেয়াদ শেষ হলেও ওয়ান ইলেভেন বা মহাজোট সরকার নির্বাচনও দেয়নি তাকে সরিয়ে, প্রশাসক ও নিয়োগ করেনি। রহস্যজনক নাটকীয়তায় এক ভোটে দুই টার্ম মেয়াদ পার করতে যাচ্ছেন ভাগ্যবান সাদেক হোসেন খোকা।

[ad#co-1]