তবুও নির্ধারিত সময়ে পদ্মা সেতুর কাজ শুরুর আশা মন্ত্রীর

বিশ্বব্যাংকের আপত্তির কারণে পদ্মা সেতু নির্মাণে ঠিকাদার নিয়োগের জন্য পুনরায় প্রাক-যোগ্যতা দরপত্র ডাকতে হলেও নির্ধারিত সময়েই এর কাজ শুরুর আশা করছেন যোগাযোগমন্ত্রী সৈয়দ আবুল হোসেন। তিনি বৃহস্পতিবার বলেছেন, “নতুন করে দরপত্র আহ্বান এবং ঠিকাদার নিয়োগ চূড়ান্ত করতে কিছুটা সময় লাগবে। তবে তা নির্ধারিত সময়ের মধ্যে পদ্মা সেতুর নির্মাণ কাজ শুরুতে কোনো প্রতিবন্ধকতার সৃষ্টি করবে না।”

বাংলাদেশে বিশ্বব্যাংকের আবাসিক প্রতিনিধি এলেন গোল্ডস্টেইনের সঙ্গে বৈঠকের পর মন্ত্রী সচিবালয়ে সাংবাদিকদের একথা বলেন।

পদ্মা সেতু নির্মাণে বিশ্বব্যাংকের অর্থ সহায়তার বিষয়ে আবুল হোসেন বলেন, “আর্থিক সহায়তা দেওয়ার বিষয়ে তাদের সম্মতি রয়েছে। কিছু বিষয়ে তাদের আপত্তি রয়েছে। এসব নিয়ে তাদের সঙ্গে আলোচনা করে সব কিছু চূড়ান্ত করা হবে।”

প্রাক-যোগ্যতা দরপত্র বাতিল প্রসঙ্গে তিনি বলেন, গত এপ্রিলে আহ্বান করা প্রাক-যোগ্যতা দরপত্রে অংশ নেওয়া প্রতিষ্ঠানগুলো দুটি বিষয়ে যোগ্যতা থাকার কথা ছিলো। কিন্তু যারা এতে অংশ নিয়েছে, তাদের দুটি যোগ্যতাই নেই। তাই বিশ্বব্যাংক আপত্তি জানিয়েছে। তাদের আপত্তির কারণেই নতুন করে দরপত্র আহ্বান করা হবে।

দেশে এ পর্যন্ত সবচেয়ে বড় নির্মাণ প্রকল্প পদ্মা সেতুতে নির্মাণে বিশ্বব্যাংক, এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি) ও জাপানের আন্তর্জাতিক সহায়তা সংস্থা (জাইকা) অর্থ সহায়তা দিচ্ছে।

মন্ত্রী বলেন, “নতুন দরপত্র আহ্বান সত্ত্বেও পদ্মা সেতু নির্মাণ কাজ অবশ্যই আগামী শুষ্ক মৌসুমে শুরু হবে।”

[ad#co-1]