আমাকে এখন ডাক্তার বলা যায়: বাঁধন

চ্যানেল আই তে প্রচারিত হচ্ছে মাহফুজ আহমেদ পরিচালিত ধারাবাহিক নাটক ‘চৈতা পাগল’। এ নাটকে অভিনয় করেছেন লাক্স সুপার স্টার তারকা বাঁধন। এছাড়াও মেডিকেল কলেজে গ্র্যাজুয়েশন শেষ করে বিএমডিসি’র রেজিস্ট্রেশন তিনি পেয়ে গিয়েছেন, অর্থাৎ এখন থেকে তিনি একজন পেশাদার ডাক্তার। এসব নিয়েই তার সঙ্গে কথা হলো আজকের দূর আলাপনে।

এবারের ঈদে কয়টি নাটকে কাজ করলেন?
এবারের ঈদে তো ডজনখানেক নাটক করেছি। সেগুলোর মধ্যে উল্লেখযোগ্য কয়েকটি নাটক হলো অঞ্জন আইচ এর ‘সুবর্ণ এবং একটি অলৌকিক সন্তান’, রায়হান খান এর ‘কুফা মজিদ’, শাহরিয়ার নাজিম জয় এর ‘আর যাবনা এভারেস্ট’ এবং চয়নিকা চৌধুরীর ‘রূপা’।

দর্শকদের দিক থেকে নাটকগুলোর ফিডব্যাক কেমন ছিল?
আমিতো ঈদের সময় দেশে ছিলাম না। তাই দর্শক প্রতিক্রিয়াটা খুব বেশি জানতে পারিনি। এ মাসের ২০ তারিখে দেশে ফিরেছি। তবে সব মিলিয়ে মোটামুটি ভালো হয়েছে এটা বলা যায়।

আগামিতে কোন কোন কাজ শুরু করছেন?
এখনও ঈদের জন্য কোনো কাজ শুরু করা হয়নি। তবে এখন আমার বেশ ব্যস্ত সময় কাটছে। পোস্ট গ্র্যাজুয়েশনের জন্য অনেক ব্যস্ত থাকতে হবে। এছাড়া নতুন বিয়ে হওয়ার জন্যও একটু ব্যস্ত সময় কাটছে। ঈদ উপলক্ষে ২/১টির বেশি নাটকে অভিনয়ের সম্ভাবনা নেই বলা যায়। এমনকি কোনো নাটক নাও করা হতে পারে।

এখন কি কি ধারাবাহিক চলছে?
এখন ধারাবাহিক বলতে শুধুমাত্র ‘চৈতা পাগল’ই চলছে। এছাড়া একদম নিয়মিত কোনো ধারাবাহিকে কাজ করা হচ্ছেনা। সর্বশেষ যে ধারাবাহিকে কাজ করেছি সেটা হলো মাসুদ মহিউদ্দিন পরিচালিত ‘এয়ারকম’। তাও সেটা ছয় মাস আগে।

পড়াশোনার খবর কী?
গ্র্যাজুয়েশন কোর্স শেষ। এখন পোস্ট গ্র্যাজুয়েশনে ভর্তির প্রক্রিয়া চলছে। তবে ইতোমধ্যেই আমি বিএমডিসি’র রেজিস্ট্রেশন পেয়ে গেছি। কাজেই আমাকে এখন ডাক্তার বলা যায়। ইচ্ছা আছে দুই মাসের মধ্যেই প্র্যাকটিস শুরু করার। এ নিয়ে কয়েকজন স্যারের সঙ্গে কথাও হয়েছে।

ব্যক্তি বাঁধন এখন কেমন আছেন?
ভালো। নেপাল ভ্রমণে গিয়েছিলাম। মধুচন্দ্রিমায় গেলেও, বিয়ের রিসেপশন এখনও সম্পন্ন হয়নি। শিগগিরই অনুষ্ঠানের তারিখ নির্ধারণ করা হবে।

[ad#co-1]