মুন্সিগঞ্জের গ্রামে ফের সংঘর্ষে আহত ১০॥পুলিশ মেতায়েন

টঙ্গীবাড়ি উপজেলার বেতকা গ্রামে মাতলামির জের ধরে দ্বিতীয় দফা সংঘর্ষে অন্তত ১০ ব্যাক্তি আহত হয়েছে। আহতদের মধ্যে হামিদ শিকদার(৬০), মোস্তফা শিকদার নাদিম মেম্বার(৩৫), আল আমিন(২২), রুবেল(২০), শ্যামল(৩০) ও শাহিনকে(২৫) স্থানীয় হাসপাতাল ও ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়েছে। বুধবার রাতে বেতকা ইউনিয়ন পরিষদ ভবনের সামনে এই সংঘর্ষ খান গ্রুপ ও শিকদার গ্র“পের মধ্যে ছড়িয়ে পড়ে। ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবারও এলাকা উত্তেজনা বিরাজ করে। ফের সহিংসতার আশঙ্কায় এলাকাং আতঙ্ক বিরাজ করছে। এলাকাবাসী জানায়, মঙ্গলবারের মাতলামির জের ধরে বুধবার দিবাগত রাত সাড়ে ১১ টার দিকে সাবেক চেয়ারম্যান পটু খান ও বর্তমান চেয়ারম্যান সিকদারের লোকজনের মধ্যে সংঘর্ষ বাঁধে। গ্রামে দু’ গোষ্ঠীর অর্ধ-শতাধিক লোক ধারালো অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। বেতকা ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল জলিল শিকদার জানিয়েছেন, আবু তালেব খান ও জামান খানের তালামির কারণেই এই সহিংসতার সূত্রপাত। অন্যদিকে পটু খান বলেছেন, এই ঘটনার জন্য শিকদার পরিবারের উগ্রতা ও মাতলামিই দায়ী।

টঙ্গীবাড়ি থানার ওসি আব্দুল্লা জানান, এই ঘটনায় দু’গ্র“পের পক্ষ থেকেই লিখিত অভিযোগ দেয়া হয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে সার্বক্ষনিক পুলিশ মেআতায়েন করা হয়েছে।

মোহাম্মদ সেলিম, মুন্সিগঞ্জ প্রতিনিধি। ০১৯১১১৪২৬৭০
২৩.০৯.১০

[ad#co-1]