ঢাকা-গজারিয়া-দাউদকান্দি রুটে বাসযাত্রীদের কাছ থেকে অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের অভিযোগ

ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের ঢাকা-গজারিয়া-দাউদকান্দি রুটের বাসযাত্রীদের কাছ থেকে অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের খবর পাওয়া গেছে। গতকাল শনিবার মেঘনা-গোমতী (দাউদকান্দি) সেতুর পূবাংশের টোলপ্লাজা এলাকা থেকে ছেড়ে যাওয়া ঢাকার সায়েদাবাদ ও গুলিস্থানগামী বাসগুলি যাত্রীদের কাছ থেকে ১০০/১২০ টাকা ভাড়া আদায় করছে বলে একাধিক যাত্রী অভিযোগ করেন। সেতুর পশ্চিম প্রান্ত গজারিয়া উপজেলার বাউশিয়া ঘাট এলাকা থেকে সিটিং সার্ভিস ‘গজারিয়া’ পরিবহন যাত্রী প্রতি একশ টাকা ও অন্যান্য যাত্রীবাহি পরিবহনগুলি ৬০/৭০ টাকা ভাড়া আদায় করছে বলে জানা যায়। ঘর ফেরত ঢাকামুখী যাত্রী বাছেদ চৌধুরী, আ: মতিন ও ফারহানা খান জানান, দাউদকান্দি টোল প্লাজা এলাকা থেকে ভাড়া যাত্রী প্রতি ৪৫ টাকা আর বাউশিয়া ঘাট এলাকা থেকে ভাড়া ৪০ টাকা অথচ ভাড়া আদায় করা হচ্ছে দ্বিগুন থেকে আড়াইগুন বেশি উল্লিখিত রুটের দড়িবাউশিয়া,ভবেরচর,ভাটেরচর,বালুয়াকান্দি ও জামালদি বাসষ্টেশন থেকেও বেশী ভাড়া আদায় করা হচ্ছে যাত্রীদের কাছ থেকে এমন অভিযোগ ভুক্তভোগি যাত্রীদের । শনিবার সকালে দিনভর উপজেলার বিভিন্ন বাস ষ্টেশনে গিয়ে ঘরফেরত ঢাকামুখি যাত্রীদের ভিড় লক্ষ্য করা গেছে এবং তাদের কাছ থেকে বেশী ভাড়া নেয়া হচেছ বলে যাত্রীরা জানান। ঢাকামুখি যাত্রীদের ভিড় থাকায় যাত্রীরাও অতিরিক্ত বেশী ভাড়া গুনতে একপ্রকার বাধ্য হচ্ছেন।

ঢাকা-গজারিয়া- দাউদকান্দি রুটের যাত্রী পরিবহনে নিয়োজিত বাস মালিক সমিতির সভাপতি আমানউল্লা গতকাল শনিবার জানান, বেশী ভাড়া আদায়ের অভিযোগ সঠিক না, কোন যাত্রী যদি আমাদের জানায় আমরা সে গাড়ীর বিরুদ্বে ব্যবস্থা নেব। গজারিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহা: আরজু মিয়া পিপিএম (বার) জানান, বেশী ভাড়া আদায়ের বিষয়টি আমার জানা নেই। খোঁজ নিচ্ছি সত্যতা পেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে। গজারিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ফিরোজ আহমেদ গতকাল শনিবার জানান, আমি প্রশিক্ষনের জন্য ঢাকায় আছি খোঁজ খবর নেয়ার জন্য পুলিশ প্রশাসন কে অনুরোধ করবো।

মোহাম্মদ সেলিম, মুন্সিগঞ্জ প্রতিনিধি। ০১৯১১১৪২৬৭০
১৮ সেপ্টেম্বর ২০১০

[ad#co-1]