আওয়ামীলীগ ও বিএনপির সংঘর্ষ, আহত ১০

শ্রীনগরে ঈদ শুভেচ্ছা বিনিময় সংবর্ধণা অনুষ্ঠান ঘিরে
মুন্সিগঞ্জের শ্রীনগর উপজেলার কোলাপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের সামনে এক বিএনপি নেতার ঈদ শুভেচ্ছা বিনিময় ও সংবর্ধণা অনুষ্ঠানকে কেন্দ্র করে আওয়ামীলীগ ও বিএনপির মধ্যে সংঘর্ষে ১০ জন আহত হয়েছে। আহতদের স্থানীয় শ্রীনগর স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার সকাল ১০ টায় কোলাপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের সামনে শ্রীনগর উপজেলা বিএনপির সভাপতি ও কোলাপাড়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মোমিন আলীকে ঈদ পরবর্তী এক সংবর্ধণা ও ঈদ শুভেচ্ছা বিনিময় অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এই অনুষ্ঠানে যোগ দিতে আশপাশের গ্রাম থেকে বিএনপি নেতাকর্মীরা আসতে থাকে। এসময় একটি মিছিল কোলাপাড়া বাজার হয়ে শ্লোগান দিয়ে আসার পথে মিছলকারী এক কর্মীর সঙ্গে পাশের এক যুবলীগ নেতার সঙ্গে ধাক্কা লাগে। এই নিয়ে উভয়ের মধ্যে কথাকাটকাটি ও ঝগড়া হয়। পরে এই ঝগড়া ছড়িয়ে যায় সংবর্ধণা অনুষ্ঠানে। শুরু হয় দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ। এতে ১০ জনের মত আহত হয়।

সংবর্ধণা অনুষ্ঠানে উপজেলা বিএনপির সভাপতি মোমিন আলীসহ আগত অতিথিরা ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ের ভেতরে অবস্থান নেয়। পরে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

উপজেলা বিএনপির সভাপতি মমিন আলী জানান, কোলাপাড়া বাজারে নেতাকর্মী ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের মালিকদের সঙ্গে ঈদ শুভেচ্ছা বিনিময় করা সময় যুবলীগের লিটনসহ কয়েকজন তাদের নেতাকর্মীদের উপর হামলা করে। তারা আমাদের নেতাকর্মীদের ইউনিয়ন পরিষদের কার্যালয়ে অবরুদ্ধ করে রাখে। তাদের হামলা ও ইটপাটকেলের আঘাতে মোজাম্মেল ও শামীমসহ বেশ কয়েকজন নেতাকর্মী আহত হয় বলে তিনি দাবী করেন।

অন্যদিকে স্থানীয় সাংসদ ও শ্রীনগর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি সুকুমার রঞ্জন ঘোষ জানান, মমিন আলীর লোকজন আওয়ামী লীগের লিটন নামের এক নেতার উপর হামলা করে। এতে লিটন আহত হলে নেতাকর্মীরা উত্তেজিত হয়ে পরে। বিষয়টি জানার সাথে সাথে পুলিশকে খবর দিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করা হয়।

এ প্রসঙ্গে শ্রীনগর থানার ওসি শাখাওয়াত হোসেন জানান, দুই পক্ষকেই নিরাপদ দুরত্বে সরিয়ে দেয়া হয়েছে। বর্তমানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে।

মোহাম্মদ সেলিম, মুন্সিগঞ্জ প্রতিনিধি। ০১৯১১১৪২৬৭০
১৪.০৯.১০

[ad#co-1]