গজারিয়ায় বিএনপি কর্মীকে পিটিয়ে হত্যা

মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি সালিশ বৈঠক চলাকালে মনির হোসেন নামের এক বিএনপি কর্মীকে পিটিয়ে হত্যা করেছে আ’লীগ কর্মীরা। শনিবার গজারিয়া উপজেলার হোসেন্দি ইউনিয়নের গোয়ালগাঁও গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, বৃহস্পতিবার বোরহান ও কলিমউল্লাহ নামের দুই ব্যক্তির মধ্যে মারামারি ঘটনার মীমাংসা করতে শনিবার গোয়ালগাঁও হারুন ভূঁইয়ার বাড়িতে সালিশ বৈঠক বসে। বৈঠকে উভয় পক্ষের মধ্যে তর্কবির্তক হলে আ’লীগ কর্মী ইসমাইল, ইব্রাহিমসহ ৭-৮ জন রুমনকে পেটাতে থাকে। এ সময় রুমনের বাবা বিএনপি কর্মী মনির হোসেন ভূঁইয়া ছেলেকে বাঁচাতে যায়। হামলাকারীরা তাকেও পিটিয়ে রক্তাক্ত জখম করে। পরে গুরুতর অবস্থায় হাসাপাতালে নেয়ার পথে তার মৃত্যু হয়। গজারিয়া থানার ওসি এসএম শহিদুল ইসলাম জানান, সালিশ বৈঠকে বোরহানকে দোষী সাব্যস্ত করে তার মামা মোনাম্বর মেম্বারকে শাস্তি দিতে বলে। মোনাম্বর মেম্বার বোরহানকে লাঠি দিয়ে ২/৩টি বাড়ি দেয়ামাত্র বোরহানের লোকজন বাধা দেয়। শুরু হয় সংঘর্ষ। এ সময় মনির ভূঁইয়ার ছেলে রুমন কলিমুল্লাহর পক্ষ নিলে উত্তেজিত হয়ে ছেলেকে ধমক দিলে হার্ট অ্যাটাক করে। পরে হাসপাতালে নেয়ার পথে সে মারা যায়। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হলে তার স্ত্রী হার্ট অ্যাটাকে মারা গেছে জানিয়ে ময়নাতদন্ত ছাড়াই লাশ নিয়ে আসে। পুলিশ লাশ সুরতহাল করেছে। ঘটনার পর থেকে এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। এলাকায় পুলিশ মোতায়ন করা হয়েছে।

[ad#co-1]