তিন বিচারকের অভিষেক

এফডিসি। ৮ নম্বর ফ্লোর। এখানেই বসেছে মার্কস অলরাউন্ডার প্রতিভার ঝলকে সেরা হও পলকে অনুষ্ঠানের চূড়ান্ত পর্বের প্রতিযোগিতা। অভিষেকের অপেক্ষায় আছেন তিন বিচারক—জুয়েল আইচ, অপি করিম ও হাবিব ওয়াহিদ। তিনজনই প্রথমবারের মতো রিয়ালিটি শোর বিচারক হিসেবে কাজ করছেন।

জানা গেছে, গত সপ্তাহ পর্যন্ত জুয়েল আইচ গলার সমস্যায় ভুগেছেন। কথাও তেমন বলেননি। এখন ব্যথা নেই। তবে কথা বলছেন থেমে থেমে।

বিচারক হওয়ার অনুভূতি জানাতে গিয়ে বললেন, ‘বাচ্চাদের সঙ্গে সময় কাটাতে পারব বলেই বিচারক হতে রাজি হয়েছি। ফুটফুটে বাচ্চাগুলোর প্রতিভা দেখে সত্যি অবাক হয়ে যাই। বিচারক হিসেবে কাজ করতে এসে আমি এখন মুগ্ধ দর্শক।’

অপি করিম বললেন, ‘এখানে এসে মনে হচ্ছে, বাংলাদেশে প্রতিভার অভাব নেই। দরকার শুধু সঠিক পরিচর্যা। খুবই ভালো লাগছে।’

আরেক বিচারক হাবিবের মাথায় চুল দেখে মনে হবে, নতুন স্টাইল। কিন্তু না, হাবিব সম্প্রতি ওমরাহ হজ করেছেন। তখন চুল ফেলে দিয়েছিলেন। তাই চুল এখনো তেমন বড় হয়নি। বিচারক হওয়া প্রসঙ্গে হাবিব বললেন, ‘আমি বরাবরই এসব অনুষ্ঠান থেকে একটু দূরে থাকি। বাচ্চাদের অনুষ্ঠান বলেই রাজি হয়ে গেলাম।’

ওদিকে মঞ্চ তৈরি প্রতিযোগিতার জন্য। বিচারক তিনজন গিয়ে বসলেন তাঁদের নির্ধারিত আসনে।
গতকাল বুধবার ছিল নিম্নমাধ্যমিক দলের সেরা ১১ জনের প্রতিযোগিতা। দিনশেষে তাদের মধ্য থেকে সেরা ছয়জনকে নির্বাচন করা হয়েছে।

অনুষ্ঠানটির পরিচালক তানভীর খান জানান, চূড়ান্ত পর্বের এই অনুষ্ঠানটি এনটিভিতে দেখানো হবে ১২ জুন।

[ad#co-1]