মুন্সীগঞ্জ থানায় মামলা নিতে পুলিশের গড়িমসি

মধ্যযুগীয় কায়দায় বসতঘরে আগুন লাগিয়ে মা-মেয়েকে পুড়িয়ে মারার প্রচেষ্টা, ইউপি চেয়ারম্যানকে মারধর, গৃহবধূর ওপর নির্যাতন, সহোদর দু’ভাইকে কুড়াল ও দা’ দিয়ে কুপিয়ে রক্তাক্ত জখম এমন প্রায় একডজন সহিংস ঘটনায় মামলা দায়েরে পিছিয়ে আছে মুন্সীগঞ্জের গজারিয়া থানা পুলিশ। চলতি মাসেই জেলার গজারিয়া উপজেলার বিভিন্ন গ্রামে ওইসব সহিংস ঘটনা ঘটে।

গত ১৪ মে, রাত ৩টার দিকে চরকুমারিয়া-পূর্বনয়াকান্দি সড়ক তৈরির কাজের মাটির শ্রমিকদের সুপারভাইজার হারম্নন খা’র বসতঘরে দুর্বৃত্তরা আগুন লাগিয়ে তার স্ত্রী হাফিজা খাতুন ও মেয়ে সোনিয়াকে পুড়িয়ে মারার প্রচেষ্টা চালায়। একই দিন সন্ধ্যায় পূর্ব নয়াকান্দিতে বাউশিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুল মান্নান ওরফে মনা চেয়ারম্যানকে মারধর করা হয়। এছড়া ১১ মে গজারিয়ার শিমুলিয়া গ্রামে আব্দুর রাজ্জাক ও কাউসার গ্রম্নপের মধ্যে সংঘর্ষ হলে কাউসারের বাড়িঘর ভাংচুর ও রাজ্জাকের স্ত্রীকে কুপিয়ে জখম করা হয়। ৩ মে জামালদী গ্রামে সহোদর ভাই হোসেন (৩০) ও জসিমকে (২৫) দুর্বৃত্তরা চাইনিজ কুড়াল ও দা দিয়ে কুপিয়েছে। গোয়াগাছিয়া গ্রামে গৃহবধূ তাসলিমাকে মারধর করে মাথা ফাটিয়ে দেয়া হয়েছে।

[ad#co-1]