কাওড়াকান্দি ও মাওয়া ফেরিঘাট প্লাবিত

৫ শতাধিক গাড়ি পারাপারের অপেক্ষায়
কাজী দীপু ও সম্পা রায়: পদ্মায় অস্বাভাবিক পানি বৃদ্ধির ফলে কাওড়াকান্দি ১নং ও রো রো ফেরির ৩নং পন্টুন প্লাবিত হয়েছে। এছাড়া দুটি কে টাইপ ফেরি বিকল হয়ে যাওয়ায় যান পারাপারে বিঘ্ন ঘটছে। এতে করে কাওড়াকান্দি ও মাওয়া ঘাটে আটকে আছে ৫ শতাধিক গাড়ি। উভয় ঘাটে দেখা দিয়েছে তীব্র যানজট। কাওড়াকান্দি ফেরি ঘাটের ২টি ঘাট ডুবে যাওয়ায় সেগুলো দফায় দফায় স্থানান্তরের মাধ্যমে সচল রাখা হচ্ছে। এ ছাড়া, এ রুটের অন্য ৩টি ঘাটও ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে। রুটের ১২টি ফেরির মধ্যে দুটি বিকল হয়ে পড়েছে। এ ছাড়া রো রো ফেরিঘাট প্লাবিত হওয়ায় ৩টি রো রো ফেরি চলাচলও বন্ধ রয়েছে। কে টাইপের ৭টি ফেরি সচল থাকলেও সংশ্লিষ্টদের অবহেলায় লোড-আনলোডের ক্ষেত্রে প্রতিবন্ধকতার সৃষ্টি হয়েছে।

যশোর থেকে কাঁচামাল বোঝাই ট্রাক চালক রহমান বেপারী শীর্ষ নিউজ ডটকমকে জানান, ঘাটের অবস্থা খুব খারাপ। জানি না কখন ট্রাকবোঝাই কাঁচামাল কারওয়ান বাজারে নিয়ে পৌঁছাতে পারব। বরিশাল থেকে ঢাকাগামী বাসযাত্রী নাজমা বেগম জানান, ঘাট এলাকায় প্রায় দুঘণ্টা ফেরি পারাপারের অপেক্ষায় বসে আছি। কিন্তু এখানে কোনো পাবলিক টয়লেট না থাকায় মহিলা যাত্রীরা দুর্ভোগের শিকার হতে হচ্ছে।

বিআইডব্লিটিএ’র সহকারী মহাব্যবস্থাপক আশিকুজ্জামান জানান, পদ্মায় হঠাৎ করে পানি বৃদ্ধির ফলে বৃহস্পতিবার বিকাল থেকে কাওড়াকান্দি ঘাটের দুটি ফেরিঘাট বিকল হয়ে পড়ে। এ ছাড়া দুটি কে টাইপ ফেরি কয়েকদিন ধরে মাওয়া ডক ইয়ার্ডে থাকায় যাত্রী পারাপারে বিঘ্ন ঘটছে। তবে আশা করছি শুক্রবার (২১ মে) রাত অথবা শনিবার সকালের মধ্যেই ঘাট দুটি মেরামতশেষে ফেরি চলাচল আগের মতো সচল হবে।

[ad#co-1]