মানিকের উপন্যাস নিয়ে ধারাবাহিক

কথাসাহিত্যিক মানিক বন্দ্যোপাধ্যায়ের ‘পুতুলনাচের ইতিকথা’ উপন্যাস অবলম্বনে আলভী আহমেদ নির্মাণ করেছেন ধারাবাহিক নাটক ‘পুতুলনাচের ইতিকথা।’ নাট্যরূপ দিয়েছেনও আলভী আহমেদ। পুতুলনাচের ইতিকথা উপন্যাসের কাহিনী গড়ে উঠেছে গাওদিয়া গ্রামকে কেন্দ্র করে। গাওদিয়া গ্রামের ছেলে শশী ডাক্তারি পাস করে এলাকায় আসে মানবসেবার মহৎ উদ্দেশ্য নিয়ে। ঘটনাক্রমে একই গ্রামের পরানের স্ত্রী কুসুম শশীর প্রেমে হাবুডুবু খায়। কুসুম চায় ডাক্তার শশী তার অসুস্থ ননদ মতির মতোই তার বুকও অনেকক্ষণ পরীক্ষা করে দেখুক। বৃষ্টিস্নাত নির্জন দুপুরে কুসুম শশীর ঘরে গিয়ে বলে ‘সইতে পারি না’। মিছেমিছি মাথা ধরার ভান করে তার স্পর্শ পেতে চায়। চাঁদনী রাতে শশীকে নিয়ে দূরে হারিয়ে

যাওয়ার বাসনা জানায় কুসুম। কিন্তু এক সময় শশীর প্রতি কুসুমের আকর্ষণ নিঃশেষ হয়ে যায়। শশীর আত্মনিবেদন প্রত্যাখ্যান করে কুসুম। এ উপন্যাসে ফ্রয়েডিজম যেমন স্থান পেয়েছে, তেমনি লেখক এটাও বোঝাতে চেয়েছেন, মানুষ পুতুলের মতো অদৃশ্যের সুতার টানে পরিচালিত হচ্ছে। আলভী আহমেদ জানান, মূল উপন্যাসের সারাংশ যথাসম্ভব সামঞ্জস্য বিধানে সচেষ্ট থেকেছি। নাটকটিতে শশী ও কুসুম চরিত্রে অভিনয় করেছেন আনিসুর রহমান মিলন ও তমালিকা কর্মকার। মতি চরিত্রে অভিনয় করেছেন তিশা। এছাড়া মামুনুর রশীদ, ড. ইনামুল হক, রওনক হাসান, দীপান্বিতা, মাহমুদুল ইসলাম মিঠু বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন। ২৬ পর্বের এ ধারাবাহিকটি শিগগিরই প্রচার হবে বিটিভিতে।

[ad#co-1]