মুহিতকে ফখরুদ্দীন, আমরা অনেকের সফ্ট টার্গেট

সেনা সমর্থিত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক প্রধান উপদেষ্টা ড. ফখরুদ্দীন আহমেদ বলেছেন, উই আর সফ্ট টার্গেট। তাই যা খুশি তাই বলা হচ্ছে। সে সব নিয়ে কিছু মনে করিনি। তবে আমি চেষ্টা করেছি সততা ও নিষ্ঠার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করতে। ওয়াশিংটন ডিসি’র জর্জটাউন হোটেলে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতের সঙ্গে এক সৌজন্য সাক্ষাতে মিলিত হন ড. ফখরুদ্দীন আহমেদ। ড. ফখরুদ্দিন পেশাগত জীবনে আবুল মাল আবদুল মুহিতের জুনিয়র। তাই মুহিতকে তিনি ‘স্যার’ সম্বোধন করেন। অত্যন্ত হৃদ্যতাপূর্ণ পরিবেশে এ সাক্ষাতের সময় বাংলাদেশের নানা পরিস্থিতি আলোচনায় উঠে আসে। বিশ্বব্যাংকের সাবেক কর্মকর্তা ড. ফখরুদ্দীন অর্থমন্ত্রীকে জানান তিনি যেখানেই থাকেন না কেন, বাংলাদেশের সার্বিক কল্যাণে সচেষ্ট সবসময়। এ সময় অর্থমন্ত্রী তাকে জানান, কতিপয় রাজনীতিবিদ হুমকি-ধামকি দিচ্ছেন মইন-ফখরুদ্দীন-ইয়াজউদ্দিনকে দেখে নেবার। এ কথা জেনে মৃদুভাষী ড. ফখরুদ্দীন আহমেদ খুবই শান্তভাবে বলেন, এ ধরনের কথা বলা যেতেই পারে। কেননা আমরা হচ্ছি অনেকের সফ্ট টার্গেট। ড. ফখরুদ্দিন সন্তোষ প্রকাশ করেছেন বাংলাদেশে গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠানে গুণগত পরিবর্তনের আবহ তৈরি হওয়ায়। কথায় কথায় হরতালের প্রবণতা দূর হওয়াকে তিনি সাধুবাদ জানান। বর্তমান সরকারের মন্ত্রিসভায় স্বচ্ছতা ও জবাবদিহির ব্যবস্থা এবং দুর্নীতি করলে রেহাই নেই-এমন ভীতি সবার মধ্যে বিরাজ থাকার ব্যাপারটির দীর্ঘমেয়াদি একটি সুফল আসবে বলেও আশা পোষণ করেন।

দিনের শেষে

[ad#co-1]