সড়ক দুর্ঘটনার পর ব্যারিকেড ॥ শতাধিক যানবাহন ভাংচুর

ঢাকা-মাওয়া মহাসড়কে যানজট
রবিবার দুপুরে ঢাকা-মাওয়া মহাসড়কের ধলেশ্বরী-২ সেতুর ঢাকা প্রান্তে কেরানীগঞ্জ উপজেলার আব্দুল্লাপুর ভাওয়ার ভিটি নামক স্থানে সড়ক দুর্ঘটনাকে কেন্দ্র করে তুলকালাম ঘটে গেছে।

উত্তেজিত জনতা মহাসড়ক ব্যারিকেড দিয়ে ৩ ঘণ্টা অচল করে রাখে। শতাধিক যান ভাংচুর করে। এই সময় উভয় পাশে কয়েক কিলোমিটার দীর্ঘ যানজট সৃষ্টি হয়। প্রচ- গরমের মধ্যে হাজার হাজার আরোহী পড়ে অবর্ণনীয় দুর্ভোগে।

পুলিশ ৩ ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে বিকেল ৪টার দিকে পরিস্থিতি কিছুটা নিয়ন্ত্রণে আনলে আবার যান চলাচল শুরম্ন হয়। পরে আস্তে আস্তে স্বাভাবিক হতে থাকে। পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, দুপুর ১টার দিকে মাওয়াগামী গাংচিল পরিবহনের ১টি যাত্রীবাহী বাসের ধাক্কায় বিপরীতমুখী ১টি মোটরসাইকেল আরোহী নুরুজ্জামান (৪০) নামের ১ ব্যক্তি ঘটনাস্থলেই নিহত হয়। সঙ্গে সঙ্গে উত্তেজিত জনতা এলোপাতাড়ি বিভিন্ন যানবাহন ভাংচুর চালাতে থাকে এবং ব্যারিকেড দিয়ে যানবাহন চলাচল সম্পূর্ণ বন্ধ করে দেয়।

নিহত নুরুজ্জামানের বাড়ি কেরানীগঞ্জের দড়িয়া গ্রামে। পরিবারসহ সৌদি প্রবাসী নুরুজ্জামান কিছুদিন আগে দেশে ছুটিতে আসেন। ৬দিন পর তার আবার সৌদিতে যাওয়ার কথা ছিল। উত্তেজিত জনতা সিরাজদিখানের নিমতলী থেকে কেরানীগঞ্জে আব্দুল্লাপুর পর্যন্ত যানবাহন ভাংচুর চালায়। এই সময় যাত্রীদের মাঝে এক ভীতিকর পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়। সিরাজদিখান থানার ওসি মতিউর রহমান বিকালে জানান, পরিস্থিতি পুলিশের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। তবে যা ঘটে গেছে তা দুঃখজনক।

[ad#co-1]