মুন্সীগঞ্জে ছেলেকে বাঁচাতে গিয়ে মা গুরুতর জখম

জমিসংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে মুন্সীগঞ্জ সদর উপজেলার ভাসানচর-নমকান্দি গ্রামের বিবেক হাওলাদারের স্ত্রী চায়না রানীকে (৩৮) রবিবার দুপুরে ঘরে ঢুকে প্রতিবেশী আবু কালাম ও তার লোকজন দা দিয়ে কুপিয়ে গুরুতর জখম করেছে। ছেলে পলাশকে বাঁচাতে গিয়ে চায়না রানীর মাথায় দায়ের এ কোপ লাগে। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাঁকে মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আহত চায়না রানীর ছেলে ষষ্ঠ শ্রেণীর ছাত্র পলাশ হাওলাদার জানায়, তার বাবা বিবেক হাওলাদার দুবাই থাকেন। তাদের পাঁচ গণ্ডা চাষের জমি বর্গা দেওয়া হয়েছে। প্রতিবেশী আবু কালামের কাছে জমি বর্গা না দেওয়ায় কালাম ও তার লোকজন বিভিন্ন সময় হুমকি প্রদর্শন করে আসছিল। ঘটনার দিন দুপুর ১টার দিকে আবু কালাম, জসিম, মহসীনসহ পাঁচ-ছয়জন লাঠি ও দা নিয়ে পলাশদের বাড়িতে এসে গালিগালাজ করতে থাকে। একপর্যায়ে আবু কালাম ঘরে ঢুকে পলাশকে দা দিয়ে কোপ দিতে গেলে তার মা তাকে বাঁচাতে গিয়ে মাথায় আঘাত পান।

[ad#co-1]