লৌহজংয়ে পাল্টাপাল্টি বিজয়স্তম্ভ স্থাপনের চেষ্টা, অসন্তোষ

লৌহজংয়ের গোয়ালীমান্দ্রায় পাল্টাপাল্টি বিজয়স্তম্ভের ভিত্তিপ্রস্তরকে কেন্দ্র করে মুক্তিযোদ্ধাদের মধ্যে অসন্তোষ বিরাজ করেছে। লৌহজং থানার ওসি হেলাল উদ্দিন জানান, অন্যের জমিতে এই ভিত্তিফলক স্থাপনকে ঘিরে এখানে নানা সমস্যা এবং এলাকায় বিবাদের ঘটনা ঘটেছে। বিষয়টি প্রশাসনও জানে। তার পরও আগামী ৩ এপ্রিল এখানে একটি অনুষ্ঠানের প্রস্তুতি চলছে।

উল্লেখ্য, হানাদার বাহিনীর সঙ্গে মুন্সীগঞ্জের সবচেয়ে বড় যুদ্ধ হয়েছিল এই গোয়ালীমান্দ্রায়। এতে মুক্তিযোদ্ধাদের বিজয় হয়েছিল। যা স্বাধীনতার গৌরবগাথা ইতিহাসের একটি অংশ। স্মৃতিটি রক্ষার্থে ২০০৭ সালের ১৬ ডিসেম্বর এলাকার বেশকিছু মুক্তিযোদ্ধা ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনার লোকজন গোয়ালীমান্দ্রা পুকুরের পশ্চিম পাশে বিজয়স্তম্ভ ‘বিক্রমপুর’-এর ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন।

‘বিক্রমপুর’-এর উদ্যোক্তা লায়ন এম আর খান মিজান জানান, আবেদনের প্রেক্ষিতে ২০০৮ সালের ২৮ ফেব্রুয়ারি এখানে (মান্দ্রা মৌজার ১৯০ দাগে) তিন শতাংশ খাসজমি বরাদ্দ দেয় স্থানীয় প্রশাসন। এই পুকুরের পূর্বপ্রান্তে ব্যক্তিমালিকানার জমি জবরদখল করে আরেকটি স্তম্ভ করার পাঁয়তারার কথা উল্লেখ করে বিস্ময় প্রকাশ করেছেন এই যুদ্ধে অংশগ্রহণকারী মুক্তিযোদ্ধা শেখ কামাল উদ্দিন।

[ad#co-1]