এখনও বর খুঁজে পাইনি

আজ রাত ১১টা ৩০ মিনিটে এটিএন বাংলায় প্রচার হবে ধারাবাহিক নাটক ‘হঠাৎ সীমান্তে’। মোহন খানের রচনা ও পরিচালনায় এ নাটকে অভিনয় করেছেন বাঁধন। এখানে অভিনয় ও অন্যান্য বিষয় নিয়ে তিনি কথা বলেছেন আজকের ‘হ্যালোঃ’ বিভাগে

অনেক ক্লান্ত মনে হচ্ছে আপনাকে। শুটিংয়ে ছিলেন?
: না, আমি একটি টিভি চ্যানেলের অফিসে গিয়েছিলাম। সেখানে সাক্ষাৎকার দিয়ে এইমাত্র বাসায় আসলাম।
‘হঠাৎ সীমান্তে’ নাটকে অভিনয় করে কেমন লেগেছে?
: তিন বছর আগে এ নাটকের শুটিং করেছিলাম। আমি সমস্যাগ্রস্ত একটি পরিবারের সদস্য হিসেবে অভিনয় করেছি। সবকিছু মিলিয়ে নাটকের গল্পে বৈচিত্র্য ছিল। এ নাটকে কাজ করতে গিয়ে কলা-কুশলীসহ সবার সহযোগতিা পেয়েছি।
সম্প্রতি চ্যানেল আইতে শুরু হয়েছে আপনার অভিনীত নতুন ধারাবাহিক নাটক ‘মেয়েটি ঢাকা যাচ্ছে’। এটি সম্পর্কে বলুন?
: রাবেয়া খাতুনের উপন্যাস অবলম্বনে নাটকটি পরিচালনা করেছেন চিত্রনায়িকা রোজিনা। নাটকের গল্পটা অনেক সুন্দর। যে মেয়েটিকে নিয়ে নাটকের কাহিনী, তার ভূমিকায় আমি অভিনয় করেছি। মূলত মেয়েটি শহরে আসার পর যেভাবে জীবনযাপন করে, তাই উঠে এসেছে এখানে।
আপনার অভিনীত কোন কোন নাটক প্রচারের অপেক্ষায় আছে?
: কিছুদিনের মধ্যে প্রচারের আলোয় আসবে মাসুদ আহমেদের পরিচালনায় ‘চৈতা পাগল’, আলভী আহমেদের ‘এয়ারকম’, আশুতোষ সুজনের ‘ইউটার্ন ট্যাক্সিক্যাব’, কাফি বীরের ‘বিজি ফর নাথিং’ ও রাজিবুল ইসলাম রাজীবের ‘অগ্নিরথ’ ধারাবাহিক নাটক।
আপনার অভিনীত প্রথম ছবি ‘নিঝুম অরণ্যে’ তো আগামী মাসে মুক্তি পাচ্ছে?
: হ্যাঁ। এ ছবির কর্তৃপক্ষ থেকে বিষয়টি আমাকেও জানানো হয়েছে। মুশফিকুর রহমান গুলজারের পরিচালনায় এ ছবির কাজ অনেক আগেই শেষ করেছিলাম। এটি মুক্তিযুদ্ধের গল্পের পটভূমি নিয়ে রোমান্টিক একটি ছবি।
কিছুদিন আগে গ্রাজুয়েশন শেষ করলেন। বিয়ে করছেন কবে?
: এখনও বর খুঁজে পাইনি। অভিভাবকরাও পরিকল্পনা করছেন। তাছাড়া ক্যারিয়ারটাকে গুছিয়ে তবেই বিয়ের পিঁড়িতে বসতে চাই।
সোহেল আহসান