লৌহজংয়ে পদ্মা নদীতে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের মহোৎসব

প্রতিদিন অর্ধশতাধিক ড্রেজার দিয়ে পদ্মা বহুমুখী সেতু এলাকাসহ লৌহজংয়ের পদ্মা নদীর বিভিন্ন পয়েন্ট থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের হিড়িক পড়েছে। সরকারকে কোন ধরনের রাজস্ব না দিয়ে বালু উত্তোলনের মহোৎসব চলছে এই প্রস্তাবিত পদ্মা বহুমুখী সেতু এলাকার পদ্মা নদীতে। প্রশাসনের নাকের ডগায় এ অবৈধ কাজটি চললেও প্রশাসন যেন নির্বাক ঘুমিয়ে আছে। ফলে সরকারকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে মোটা অংকের রাজস্ব ফাঁকি দিচ্ছে এ অবৈধ বালু উত্তোলনকারীরা। লৌহজংয়ের পদ্মার বিভিন্ন পয়েন্টে নদীজুড়ে অর্ধশতাধিক ড্রেজার পদ্মার বুক থেকে প্রতিদিন অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করছে। এর অধিকাংশই কুমারভোগ থেকে যশলদিয়া পর্যন্ত পদ্মা বহুমুখী সেতু প্রকল্প এলাকায় বালু উত্তোলন কাজে নিয়োজিত রয়েছে। যশলদিয়াতে পদ্মা সেতু আবাসন প্রকল্প নির্মাণের কাজে মাটি ভরাটের জন্য বেশ কয়েকটি ড্রেজার দিয়ে বালু উত্তোলনের কাজ চলছে। পদ্মা সেতুর অপর আবাসন প্রকল্প কুমারভোগে পদ্মা থেকে বালু উত্তোলনের জন্য ড্রেজার বসানোর কাজ চলছে।

আবার একটি মহল ব্যবসায়িকভাবে বালু উত্তোলন করে তা বিক্রি করছে বিভিন্ন নির্মাণ প্রতিষ্ঠান ও ব্যবসায়ীদের কাছে। পদ্মার বুক থেকে ড্রেজারের মাধ্যমে বালু উত্তোলনের ফলে বিগত দুই দশকে লৌহজংয়ের দুটি ইউনিয়ন ও উপজেলা কমপ্লেক্স এলাকাসহ নিচিহ্ন হয়ে গেছে শত শত বসতবাড়ি, অফিস-আদালত, স্কুল-কলেজ, পুরাকীর্তি, ফসলি জমিসহ অসংখ্য স্থাপনা। গৃহহীন হয়েছে শত শত পরিবার। সেসময় জনগণের বিক্ষোভের মুখে সরকার পদ্মার বুক থেকে বালু কাটা বন্ধ করে দেয়। কিন্তু এবার যেভাবে সেই পদ্মা থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন চলছে তাতে লৌহজংবাসী আবারও সঙ্কিত হয়ে পড়েছে তাদের বসতভিটা নিয়ে। বিআইডব্লিউটিএর মাওয়া নদী বন্দরের সহকারী বন্দর কর্মকর্তা বাবু লাল বৈদ্দ জানান, পদ্মা নদী হতে বালু উত্তোলন করতে হলে বিআইডব্লিউটিএ ও জেলা প্রশাসনকে নির্দিষ্ট হারে রাজস্ব দিয়ে অনুমতি সাপেক্ষে জনগণের জন্য হুমকি নয় এমন জায়গা থেকে বালু উত্তোলন করা যেতে পারে। কিন্তু এখানে কোন নিয়ম-নীতির তোয়াক্কা না করে সরকারকে লাখ লাখ টাকার রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করা হচ্ছে। এ ব্যাপারে লৌহজং উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, ওসি লৌহজং, বিআইডব্লিউটিএ পরিচালক বন্দর ও পরিবহন ঢাকা, উপ-পরিচালক (বন্দর) ঢাকা নদী বন্দরকে চিঠি দিয়েও কোন প্রকার ফল পাওয়া যায়নি। বরং অবৈধ বালু উত্তোলনকারীরা বালু উত্তোলনের মাত্রা আরও বাড়িয়ে দিয়েছে।

[ad#co-1]