৫০ কিলোমিটারজুড়ে গাড়ি আর গাড়ি

ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে ৭ ঘণ্টার যানজট
ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের দাউদকান্দির গৌরীপুর বাসস্ট্যান্ডের কাছে শুক্রবার ভোরে একটি মালবোঝাই কভার্ডভ্যান উল্টে গেলে উভয় দিকে যানচলাচল বন্ধ হয়ে যায়। ফলে গজারিয়া উপজেলার মেঘনা সেতু এলাকা থেকে দাউদকান্দির ইলিয়টগঞ্জ হয়ে চান্দিনা উপজেলার মাধাইয়া পর্যন্ত প্রায় ৫০ কিলোমিটার দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়। গৌরীপুর ও ইলিয়টগঞ্জ হাইওয়ে ফাঁড়ি পুলিশ সাত ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে দুর্ঘটনাকবলিত গাড়িটিকে সরিয়ে নিলে যানচলাচল স্বাভাবিক হয়।

সাত ঘণ্টা আটকে থাকা গ্রিন লাইন পরিবহনের যাত্রী আ. হালিম চৌধুরী বলেন, ‘চট্টগ্রাম থেকে রাত ১২টায় ছেড়ে আসা গাড়িটি ভোর ৫টায় ঢাকায় পেঁৗছার কথা, কিন্তু এখন বাজে সকাল ৯টা। দাউদকান্দিতে যানজটে আটকে আছি।’ যানজটে আটকা পড়ে শিশু-বৃদ্ধ, চালকসহ হাজার হাজার যাত্রীকে দুর্ভোগ পোহাতে হয়। দীর্ঘ সময়ের এ যানজটে আটকা পড়ে অসুস্থ হয়ে পড়ে অনেকেই। ট্রাকচালক নূর মোহাম্মদ জানান, ঢাকা থেকে গৌরীপুরের উদ্দেশে রওনা হয়ে সকাল ৮টায় মদনপুর এলাকায় এসে যানজটে আটকা পড়ে ৩০ মিনিটের রাস্তা পাঁচ ঘণ্টায় পেঁৗছান। মাইক্রোবাসের বিদেশগামী যাত্রী শিমুল জানান, তিনি সৌদি আরব যাবেন। দুপুর ১২টায় তাঁর ফ্লাইট। ১১টার মধ্যে বিমানবন্দরে পেঁৗছাতে না পারলে তাঁর ফ্লাইট মিস হয়ে যেতে পারে। বহু যাত্রীকে হেঁটে ১০-১২ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়ে ছোট ছোট যানবাহনে গন্তব্যে যেতে দেখা গেছে। ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে দাউদকান্দির গৌরীপুর-সাচার, গৌরীপুর-মতলব, গৌরীপুর-হোমনার সংযোগ সড়ক থাকায় এখানে প্রায়ই যানজট লেগেই থাকে। তাছাড়া যানবাহন নিয়ন্ত্রণের জন্য গৌরীপুর এলাকায় হাইওয়ে পুলিশ পর্যাপ্ত নয়।এ ছাড়া গৌরীপুরে রাস্তার ওপরে এবং রাস্তার দুই পাশে অবৈধভাবে যানবাহন পার্কিং করে রাখায় পথচারীদেরও চলাচল করতে অসুবিধা হয়।

[ad#co-1]