রুমার ভাইকে উল্টো আসামি করে মামলা!

কলেজছাত্রীর আত্মহনন
বোনের আত্মহনন মালার বাদী ভাই সাংবাদিক শামীমকে উল্টো হত্যা মামলার আসামি করা হয়েছে! টঙ্গীবাড়ি উপজেলার চাঠাদিপাড়া গ্রামের কলেজছাত্রী রম্নমা আক্তার (১৯) আত্মহননের প্ররোচকরা নিজেদের রায় বুধবার মুন্সীগঞ্জ আদালতে এই মামলা আবেদন করে নিহত রম্নমাকে উত্যক্তকারী রাজিবের (২৫) মা হালিমা বেগম। এই মামলায় রম্নমার মা ও ভাইসহ ৩ জনকে আসামি করা হয়েছে বলে আদালত সূত্রে জানা গেছে। তবে এখনও এই মামলা সম্পর্কে রম্নমার পরিবার বা পুলিশ কিছু জানে না।
এই মামলায় বলা হয়েছে, রম্নমা তার ছেলের বউ। কিন্তু ভাই ও পরিবারের লোকজন তাকে হত্যা করেছে। এদিকে এই হত্যা মামলার ঘটনায় এলকায় ােভ আরও বেড়ে গেছে। ভুয়া কাবিননামা প্রদর্শন করে রম্নমাকে আত্মহনের ঘটনাকে ঢাকা দিতেই সেই কাবিননামা দিয়েই এটি করা হয়েছে। এর পেছনে একটি প্রভাবশালী মহল কাজ করছে বলে এলাকাবাসী জানিয়েছে।

জানা গেছে, বুধবার আদালতে গ্রেফতারকৃত গ্রাম্য মোড়ল মোসত্মফা ব্যাপারী (৪০) ৫ দিনের রিমান্ড আবেদন করা হয়েছে। ঘাতক রাজিবের পাতানো মামা এই গ্রাম্য মোড়ল মোসত্মফা মিয়াই রম্নমার বিরম্নদ্ধে গ্রামে অপপ্রচার চালিয়েছে বলে গ্রামের বহু নারী-পুরম্নষ অভিযোগ করেন। বখাটে যুবক মৃত হুমায়ুন শেখের ছেলে রাজিব এখনও গা-ঢাকা দিয়ে আছে।

এদিকে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় নিজ গ্রামের কবরস্থানে রম্নমার লাশ দাফন করা হয়।

বুধবার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে পুলিশ সুপার মোঃ সফিকুল ইসলামসহ বিভিন্ন কর্মকর্তা।

উলেস্নখ্য রাজিব কলেজ ছাত্রী রম্নমাকে রাসত্মাঘাটে উত্ত্যক্ত করে আসছিল। রম্নমা পারিবারিকভাবে বিষয়টি জানালে ঐ বখাটে যুবক প্রতিশোধ নেয়ার জন্য গ্রামের মোড়ল মোসত্মফা ব্যাপারী, আমিনুল ইসলামসহ চার-পাঁচজনের সহায়তায় একটি ভুয়া কাবিননামা তৈরি করে এলাকায় প্রচার করে। এ দিকে এ ঘটনা গ্রামময় ছড়িয়ে পড়লে সোমবার ােভ ও ঘৃণায় রম্নমা আত্মহত্যা করে। এই আত্মহননের ঘটনায় ভাই শামীম বাদী হয়ে টঙ্গীবাড়ি খানায় মামলা দায়ের করেছেন।

[ad#co-1]

One Response

Write a Comment»
  1. The occurrence is a common affair of our country,but the most progressive people of Munshiganj never obey the murdered(not sucide).To blame of the victim’s relatives is the political & police administration’s conspiracy.This is the high time to protect the imposter of the society .I request the conscious people of Munshiganj please come forward & take necessary steps to remove such crime from society with roots and open the veil of those whose are helped the criminals (the so-called social worker).On behalf pupil of Dhaka University I condemn of this repulsive occurrence .