টঙ্গীবাড়ীতে আ’লীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে আহত ২৫

মুন্সীগঞ্জের টঙ্গীবাড়ী উপজেলা বাজারে সোমবার এলাকায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে গোষ্ঠীগত দ্বন্দ্বের কারেণে আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে উভয় পক্ষের অন্তত ২৫ জন আহত হয়। গুরুতর আহতরা হলো টঙ্গীবাড়ী উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি বাচ্চু ভান্ডারী (৪০), সাধারণ সম্পাদক স্বপন মাঝি (৩৫), জাহাঙ্গীর মাঝি (৩০), শাকিল মাঝি (২৫), মিজান খান (২৩), স্থানীয় ছাত্রলীগ নেতা রুবেল খান (২৫), আমিন খান (২৪), কাউসার খান (২২), আবদুল আজিজ খান (৫৫)। তাদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল ও ঢাকা মেডিকেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এলাকাবাসী জানায়, বাঁশবাড়ির খান গোষ্ঠীর আমিন খান, রুবেল খান ও মিজান খান রোববার রাত সাড়ে ৮টার দিকে মাঝিবাড়ি এলাকার এক মুদি দোকান থেকে তিনটি চিপস নেয়। দোকানদার কাউসার মাঝি চিপসের দাম চাইলে তা দিতে অস্বীকার করলে ঝগড়া বেধে যায়। তখন মাঝিবাড়ির লোকজন এগিয়ে এলে তারা কিল-ঘুষি খেয়ে পালিয়ে যায়। পরদিন সোমবার টঙ্গীবাড়ি বাজারে মাঝিবাড়ির বাচ্চু ভা-ারী ও স্বপন মাঝি এলে বাজারের পাশের গ্রাম বাঁশবাড়ির খান গোষ্ঠীর লোকজন তাদের ওপর হামলা চালায়। এ খবর পেয়ে মাঝিবাড়ির লোকজন সংঘব্ধ হয়ে পাল্টা আক্রমণ চালায়।

[ad#co-1]