আবার চলচ্চিত্রে কাজ করছি

এনটিভিতে আজ রাতে প্রচারিত হবে ধারাবাহিক নাটক রঙ। এটি রচনা ও পরিচালনা করেছেন মুহাম্মদ মোস্তফা কামাল রাজ। এখানে অভিনয় করেছেন ইলোরা গহর। আজকের কথোপকথন তাঁর সঙ্গে।
আজ রঙ নাটকটি প্রচারিত হবে।

এখানে আমি খুব অল্প কাজ করেছি। মাত্র কয়েক দিন। কাজের সময়টা নিয়ে একটু অসুবিধা হয়েছিল। এ ছাড়া তখন আমি হঠাত্ অসুস্থ পড়ি। তাই পরে আর কাজ করতে পারিনি। তবে এখানে আমার চরিত্রটা খুব সুন্দর।

বিটিভিতে রান্না ঘরে-বাইরে অনুষ্ঠানটি প্রচারিত হচ্ছে।

আমি নিজে রান্না করতে খুব পছন্দ করি। তাই অনুষ্ঠানটি উপস্থাপনা করার প্রস্তাব পেয়ে ভালোই লেগেছে। এখানে কাজ করার সময় অনেক মজার ঘটনা ঘটে। দুই দিনে আমরা ১৩ পর্বের কাজ করেছি। প্রতিটি পর্বে তিনটি করে রান্নার আইটেম। আর আমার বলার জন্য তেমন কোনো স্ক্রিপ্ট ছিল না। এই দুই দিন আমি নিজের থেকে ননস্টপ কথা বলেছি। যাঁরা রান্না করতে এসেছেন, তাঁদেরও সহযোগিতা করেছি।

এটিএন বাংলায় জ্যোত্স্নাকাল ধারাবাহিকে আপনার চরিত্রের পরিণতিটা কেমন হলো?

যেভাবে আমাকে এখানে দেখানো হচ্ছে, সেভাবে কখনো ভাবিনি। আশা করেছিলাম চরিত্রটির শেষটুকু পুরোপুরি নেতিবাচক নাও হতে পারে। হয়তো কিছুটা পরিবর্তন হবে। শুরুতে আমাকে তেমনই বলা হয়েছিল। এর পরও নাট্যকার ও পরিচালক যা ভালো মনে করেছেন তা-ই করছেন। এখানে বলে রাখি, চরিত্রের পরিণতি দেখা কিন্তু আমার কাজ নয়। চরিত্রটি কত সার্থকভাবে ফুটিয়ে তুলতে পেরেছি, সেটিই গুরুত্বপূর্ণ।

একুশে টিভিতে তো পোস্টার ধারাবাহিকটি শুরু হলো।

এই কাজটি নিয়ে আমি খুব আশাবাদী। এতটা চ্যালেঞ্জিং চরিত্রে ইদানীং কাজ করা হয়নি। আমার সঙ্গে ছিলেন রাইসুল ইসলাম আসাদ। অসুস্থ থাকার কারণে প্রায় তিন মাস কোনো কাজ করতে পারিনি। সুস্থ হওয়ার পর কাজটি করেছি। তাই ভালো কিছু করার চেষ্টা করেছি।

চলচ্চিত্রের কী খবর?

ব্যাচেলর ছবির পর এবার মধুমতীতে কাজ করেছি। রাবেয়া খাতুনের উপন্যাস অবলম্বনে পরিচালক শাহজাহান চৌধুরী এটি তৈরি করছেন। ছবিতে চন্দ্রভানের চরিত্রটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। তার হিল্লা বিয়ে হবে। এখানে আমাকে বিভিন্নভাবে আনা হয়েছে।

[ad#co-1]