বিআইডব্লিউটিএ ও মুন্সীগঞ্জ জেলা প্রশাসনে কাজে সমন্বয় নেই দাবি ইাজারাদারদের

বালু উত্তোলনের সময় দুই ড্রেজার আটক
কাজী দীপু, মুন্সীগঞ্জ থেকে: মুন্সীগঞ্জের ধলেশ্বরী নদীর কাঠপট্রি এলাকায় বিআইডব্লিউটিএ’র অনুমতি নিয়ে বালু উত্তোলন করায় গতকাল দুটি ড্রেজার আটক করেছে পুলিশ। এদিকে বিআইডব্লিউটিএ ও মুন্সীগঞ্জ প্রশাসনের সমন্বয়হীনতার কারণে দু’দফা নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে বালু উত্তোলন কাজ বন্ধ করে দেয়া হয়েছে বলে ইজারাদাররা দাবি করেছেন। ইজারাদাররা জানান, বিআইডব্লিউটিএ’র অনুমতি নিয়ে ও সরকারি কোষাগারে রয়েলিটি জমা দিয়ে নির্ধারিত স্থান থেকে বালু উত্তোলন করা হচ্ছিল। কিন্তু রহস্যজনক কারণে প্রশাসন ও পুলিশ বারবার বালু উত্তোলন বন্ধ করে দিচ্ছে।

বিআইডব্লিউটিএ’র মিরকাদিম বন্দরের সহকারী পরিচালক মো. গোলাম মোস্তফা বলেন, নিয়মবহির্ভুতভাবে পুলিশ ও প্রশাসন বালু উত্তোলনে বাধা দিচ্ছে।

এছাড়া বন্দর সীমানার মধ্যে বালু উত্তোলন করা যাবে বলে বিআইডব্লিউটিএ, ভূমি ও নৌ-পরিবহন মন্ত্রণালয়ের যৌথ সিদ্ধান্ত রয়েছে। ওই সিদ্ধান্ত মতে বিআইডব্লিউটিএ মেসার্স মৌমিতা ট্রেডার্সকে ৩.৭০ লাখ ঘনফুট বালু কাটার অনুমতি দিয়েছে।

মুন্সীগঞ্জের জেলা প্রশাসক মো. মোশারফ হোসেন বলেন, চ্যানেলের বাইরে গিয়ে তীর ঘেঁষে বালু কাটার অভিযোগ থাকায় স্থানীয় সংসদ সদস্য ও গ্রামবাসীর চাপে ড্রেজার আটক ও বালু উত্তোলন বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। তিনি আরো বলেন, বিআইডব্লিউটিএ সীমানা নির্ধারণ করে দিলে এ সমস্যা হবে না বলে তিনি দাবি করেন। সম্পাদনা: শাম্মী আক্তার

[ad#co-1]