বিএনপিতে ফিরে যাচ্ছেন বদরুদ্দোজা চৌধুরী!

bcআমাদের সময়ের প্রতিনিধির সঙ্গে ফোনালাপ
আকিদুল ইসলাম : সিডনি থেকে
বিএনপি ছেড়ে চলে যাওয়া সিনিয়র নেতাদের আবার দলে ফিরিয়ে আনার প্রক্রিয়া চলছে বলে দীর্ঘদিন ধরেই মিডিয়াতে খবর আসছে। রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের অনেকেই বলছেন, অভিমানী ও ক্ষুব্ধ নেতাদের দলে ফিরিয়ে আনার কোনো বিকল্প নেই। শোনা যাচ্ছে, স্বয়ং বিএনপি নেত্রীও নাকি এ ব্যাপারে উদ্যোগ গ্রহণ করছেন। বিএনপির একটি ঘনিষ্ঠ সূত্র থেকে জানা গেছে, দলের প্রতিষ্ঠাতা মহাসচিব অধ্যাপক বদরুদ্দোজা চৌধুরী ও সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের প্রিয়ভাজন অলি আহমেদকে দলে ফিরিয়ে আনতে বেগম খালেদা জিয়া বেশ আগ্রহী।

প্রশান্ত মহাসাগরের তীর থেকে বঙ্গোপসাগর পাড়ের মেধাবী রাজনীতিক অধ্যাপক বদরুদ্দোজা চৌধুরীকে ফোন করে বিষয়টি সম্পর্কে জানতে চাইলে প্রথমেই তিনি বললেন, আমি দীর্ঘদিন ধরে মিডিয়ার সঙ্গে কোনো কথা বলছি না। আরো দীর্ঘকাল বলব না। বিভিন্ন মিডিয়া থেকে নিয়মিতভাবে জানতে চাওয়া হচ্ছে, আমি বিএনপিতে ফিরে যাচ্ছি কিনা। আমি কারো প্রশ্নেরই জবাব দিচ্ছি না। তাকে ব্যক্তিগত সম্পর্কের দাবির প্রসঙ্গ তুলতেই বললেন, আচ্ছা বলো কী জানতে চাও?

দিন বদলের সরকারের ১ বছর সম্পর্কে দেশের রাজনীতির অভিজ্ঞ পুরুষের মন্তব্য জানতে চাইলে বললেন, জাতি এখনো ঘুমিয়ে ঘুমিয়ে দিন বদলের স্বপ্ন দেখছে। এছাড়া আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আব্দুল জলিল সরকারের বৈধতা নিয়ে প্রশ্ন তুলে সরকারকে বেকায়দায় ফেলে দিয়েছে। জলিলকে এখন দল থেকে মানসিক ভারসাম্যহীন বলা হচ্ছে। এ কথা যারা বলছেন তারা আসলে সংবিধান পড়েননি। সংবিধান সম্পর্কে তাদের কোনো ধারণাই নেই। মানসিক ভারসাম্যহীন মানুষ কীভাবে জামা কাপড় গায়ে রাখে? কীভাবে সংসদ সদস্য থাকে? দলের উপদেষ্টা হিসেবে কীভাবে দলকে উপদেশ দেন?

বি চৌধুরী বললেন, বিরোধী দলও জাতির জন্য কোনো আশা জাগাতে পারছে না। স্বপ্ন জাগাতে পারছে না। তারপরও আমাদের সৌভাগ্য এই যে, আমরা পাকিস্তান থেকে বিচ্ছিন্ন হতে পেরেছি। আপনি আবার বিএনপিতে ফিরে যাচ্ছেন বলে শোনা যাচ্ছে। আসলেই যাচ্ছেন? তার দিকে ফোনে এমন একটি প্রশ্ন ছুড়ে দিয়ে কান পেতে থাকি একটি ‘আলোচিত উত্তর’ শোনার জন্য। তিনি হাসতে হাসতে বলেন, যখন কথাটি চারদিক শোনা যাচ্ছে তখন সত্য হতেও পারে। আমি বলি, স্যার কথাটি কি আমি সত্য বলে ধরে নেবো?

একটি ব্যথিত জনপদের দিক থেকে যেন অলৌকিক এক কণ্ঠস্বর ভেসে আসে প্রশান্ত মহাসাগরের দ্বীপপুঞ্জের দিকেÑ ‘আপাতত সত্য বলেই ধরে নাও। বাকি জবাব সময়ই দেবে’।

ই-মেইল: mail@basbhumi.com

[ad#co-1]