হুমায়ুন আজাদ হত্যা চেষ্টা মামলার শুনানি ফের পেছালো

মামলা অধিকতর তদন্তের পক্ষে আইন ও উচ্চ আদালতের সিদ্ধান্ত দেখাতে ব্যর্থতার কারণে লেখক-অধ্যাপক হুমায়ুন আজাদ হত্যা প্রচেষ্টা মামলার শুনানি আবারও পিছিয়ে গেছে।

রোববার ঢাকার এক নম্বর অতিরিক্ত মুখ্য মহানগর হাকিম এহ্সানুল হক আগামী মঙ্গলবার বাদীর আইনজীবীকে মামলার অধিকতর তদন্তের স্বপক্ষে আইন ও সিদ্ধান্ত উপস্থাপনের জন্য আবারও দিন ধার্য করেছেন।

গত ৬ অক্টোবর বহুমাত্রিক লেখক, অধ্যাপক ড. হুমায়ুন আজাদ হত্যা প্রচেষ্টা মামলায় প্রকৃত আসামীদের অভিযোগপত্রে অন্তর্ভুক্ত না করে অন্যান্যদের অন্তর্ভুক্তির বিরুদ্ধে মামলা অধিকতর তদন্তের আবেদন করেন বাদী হুমায়ুন আজাদের ভাই মঞ্জুর কবির। ওই আবেদনের আরও শুনানির জন্য আদালত রোববার দিন ধার্য করেন।

বিচারক দুপুরে বাদীর আইনজীবী আয়াত আলী পাটোয়ারীকে মামলার আসামীদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠনের পর সাক্ষ্য গ্রহণের পর্যায়ে অধিকতর তদন্তের বিষয়ে উচ্চ আদালতের সিদ্ধান্ত উপস্থাপন করতে বলেন।

কিন্তু আইনজীবী তা উপস্থাপন করতে ব্যর্থ হন। এ সময় প্রয়াত হুমায়ুন আজাদের আরেক ভাই সাজ্জাদ কবির, আগামী প্রকাশনীর মালিক ওসমান গনি, হুমায়ুন আজাদের স্ত্রী লতিফা কোহিনুর আদালতে উপস্থিত ছিলেন। তারাও আদালতে মামলাটি অধিকতর তদন্তের পক্ষে বক্তব্য রাখেন।

সাজ্জাদ কবির হুমায়ুন আজাদের মৃত্যুর আগে লেখা “আমার পুনর্জন্ম” গ্রন্থ থেকে তাকে (হুমায়ুন আজাদ) হত্যার নির্দেশ কারা দিয়েছিল সংশ্লিষ্ট সেই অংশটুকু পড়ে শুনান।

২০০৪ সালের ২৭ ফেব্র”য়ারি রাতে একুশে বইমেলা থেকে ফেরার পথে বাংলা একাডেমির উল্টো দিকের ফুটপাতে সন্ত্রাসী হামলার শিকার হন ড. হুমায়ুন আজাদ।

পরদিন তার ছোটভাই মঞ্জুর কবির অজ্ঞাতদের আসামী করে রমনা থানায় দু’টি মামলা দায়ের করেন।

[ad#co-1]